মুম্বই: টিম ইন্ডিয়ার কোচ হওয়ার জন্য উৎসুক থাকেন বিশ্বের তাবড় ক্রিকেটাররা৷ অথচ সেই দলের কোচের প্রস্তাব প্রত্যাখান করেছিলেন রাহুল দ্রাবিড়৷ কিন্তু কেন বিরাট কোহলিদের ‘হেডস্যার’ হতে অস্বীকার করেছিলেন ‘দ্য ওয়াল’? সেই তথ্য সামনে এল৷

বোর্ডের তৎকালীন সিএও চেয়ারম্যান বিনোদ রাই সোমবার জানান কেন, ভারতীয় দলের কোচের প্রস্তাব গ্রহণ করতে রাজি হননি দ্রাবিড়৷ অনিল কুম্বলের উত্তরসূরি হিসেবে টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল রাহুলকে৷ তখন দ্রাবিড় ছিলেন অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ভারত-এ দলের কোচ৷ দ্রাবিড় প্রস্তাব গ্রহণ না-করায় সেই সুযোগ কাজে লাগাতে ময়দানে নেমে পড়েন রবি শাস্ত্রী৷

বিদেশি কোচেদের বায়োডাটা শর্টলিস্ট হলেও শাস্ত্রীকেই কুম্বলের উত্তরসূরি হিসেবে বেছে নেয় সচিন-সৌরভ-লক্ষ্ণণের তৎকালীন ক্রিকেট পরামর্শদাতা কমিটি৷ কিন্তু কেন টিম ইন্ডিয়ার কোচের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেছিলেন দ্রাবিড়? আসল কারণ জানালেন বোর্ডের তৎকালীন সিএও চেয়ারম্যান৷ বিনোদ রাই বলেন, ‘আমরা রাহুলের সঙ্গে কথা বলেছিলাম৷ ও সেই সময় অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ভারত-এ দলের কোচের দায়িত্ব ছিল৷ ওই ভারতীয় ক্রিকেটের রোডম্যাপ তৈরি করেছিল৷’

তিনি আরও বলেন, ‘রাহুল আমাদের সামনের সারিতেই ছিল৷ কিন্তু ও আমাকে বলে ওর বাড়িতে দু’টো ছোট ছেলে রয়েছে৷ ভারতীয় দলের হয়ে খেলার জন্য সারা বিশ্বে ঘুরতে হয়েছে৷ ফলে পরিবারকে সময় দিতে পারিনি৷ আমার মনে হয়, আমার এখন বাড়িতে থাকা উচিত৷ পরিবারকে সময় দেওয়া উচিত৷ আমার মনে হয় এটা সঙ্গত কারণ ছিল৷ ওর অনুরোধটা আমরা বিবেচনা করেছিলাম৷ তবে ওকে আমরা জোনাল কোচ হিসেবে বিবেচনা করেছিলাম৷’

রাই আরও বলেন, ‘ও যেটা করছিল, সেটাই করে যেতে চেয়েছিল, কারণ ওর অনেক কাজ করা বাকি ছিল৷’ দ্রাবিড় কোচ হতে রাজি না-হওয়ায় ২০১৭ সালে টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচের দায়িত্ব পান শাস্ত্রী৷ আর গত বছর থেকে দ্রাবিড় গ্রহণ করেন ন্যাশানাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমির ডিরেক্টরের দায়িত্ব৷ যেটা তাঁর শহর বেঙ্গালুরুতে অবস্থিত৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ