কুনাল কামরা, নামটি হঠাৎ ভীষণ জনপ্রিয়। বিমানে ‘দ্য রিপাবলিক’ খ্যাত সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীকে প্রশ্নোত্তরে ‘হেনস্থা’ করেছেন বলেই জানা গিয়েছে। তবে এমন যে প্রথম তাও নয়। কুনাল কামরা একটি পপুলার পলিটিক্যাল কমেডি পডকাস্ট উপস্থাপনা করেন যার নাম ‘শাট আপ ইয়া কুনাল’। বিভিন্ন সামাজিক বিষয়ে তাঁর ভয়হীন কণ্ঠের জন্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয়তা পেয়েছেন এতদিন। ভারতের মত দেশের পরিসরে কমসময়ে এতটাই জনপ্রিয় হয়েছেন যে তাঁর স্ট্যান্ড- আপ কমেডির প্রতিটি টিকিট নিশ্চিতভাবে বিক্রি হয়ে যায়।

কে এই কুনাল কামরা?

বাণিজ্য নগরী মুম্বইয়ের বাসিন্দা কুনাল কামরা। ব্যবসায়ী পরিবারেই বড় হয়েছেন। পড়াশোনা করে ‘এমটিভি’তে কাজ করেছেন। টানা ছ’বছর কাজ করার পরে কেরিয়ারে একঘেয়েমি কাটাতেই ২০১৩ সালে স্ট্যান্ড- আপ কমেডিতে পদার্পণ।

সেইসময় থেকেই স্ট্যান্ড-আপ কমেডি’র মাধ্যমে মানুষের মনে দাগ কেটেছেন। প্রভাব ফেলেছেন নেট দুনিয়ায়। পরিচিতি এভাবেই এসেছে যেখানে তিনি দেশপ্রেম এবং বর্তমান ভারতের সরকার এই বিষয়গুলিতে মানুষ তাঁকে মনে রেখেছে। ‘ব্লু ফ্রগ’ নামক ‘শো’ দিয়েই তাঁর জনপ্রিয়তা। মঞ্চ তাঁকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছে দিলেও ‘শাট আপ ইয়া কুনাল’ পডকাস্ট চ্যানেলটি আসে ২০১৭ সালে। ২০১৮ সালে কুনাল কামরা ‘প্যাট্রিওটিসম এণ্ড দ্য গভর্নমেন্ট’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে সরকারকে সমালোচনা করেছেন। এরপরে ‘কৌন বনেগা ট্রোলপতি’ করেও মন জয় করেছেন শ্রোতাদর্শকদের।

সামাজিক এবং রাজনৈতিক বিষয়ে তাঁর রসবোধের সহজ সরল বহিঃপ্রকাশই জনগণের আরও কাছে নিয়ে গিয়েছে। ২০১৯ সালে ‘দ্য রিপাবলিকে’র একটি রিপোর্টে আবেগপ্রবণ বহিঃপ্রকাশে চরম সমালোচিত হয়েছিলেন এবং সেই সময় ব্যক্তিগত নম্বর সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হতে থাকে এবং তিনি তাঁর ট্যুইটার একাউন্ট একমাসের জন্য বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন।

কমেডিতে রাজনীতিকে কেন বাছলেন কুনাল: “আমি রাজনীতিতে আগ্রহী এবং আনন্দদায়ক। বর্তমানে ভারতে পলিটিক্স এবং পপুলার কালচার ভালো মিশে যাচ্ছে। জীবনে সবকিছুই রাজনৈতিক। কমেডির প্রসঙ্গ রিলেটেবেল হতে হয় আর পাঞ্চলাইন হিলারিয়াস। পলিটিক্সে এই দুটির সংমিশ্রণ সবচেয়ে ভালো”।