মুম্বই: ব্যাংক চালাতে গেলে বন্ধুত্বের কথা ভাবলে চলে না ৷ এমনই বার্তা দিয়েছেন এইচডিএফসি ব্যাংকের ম্যানজিং ডিরেক্টর আদিত্য পুরী৷ আর সে কথা বোঝাতে গিয়ে তিনি বিজয় মালিয়ার প্রসঙ্গ তুলেছেন৷ আদিত্য পুরী জানান, বিজয় মালিয়ার সংস্থা কিংফিশারকে ঋণ দিলে তা ফেরত পাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ ছিল৷ তাই মালিয়া বিশেষ বন্ধু হওয়া স্বত্তেও তাঁর করা ঋণের আবেদন এইচডিএফসি কর্তা মঞ্জুর করেননি করেননি৷

আদিত্য পুরির মতে, ব্যাংক ব্যবসায় ঋণ দেওয়া এবং সেই ঋণ ফেরতের ক্ষেত্রে একটা ঝুঁকি থাকে ৷ এই ব্যাপারে একটা স্বচ্ছ ধারণা থাকা উচিত । বন্ধুত্বের খাতিরে ঋণ দেওয়ার ঝুঁকি অবজ্ঞা করা চলে না। আর সেটা তিনি যে অক্ষরে অক্ষরে পালন করেন সেটা বুঝিয়ে দিলেন বিজয় মালিয়ার ঋণের আবেদনের সময় তাঁর ভূমিকার কথা বলে৷

এই ব্যাংক কর্তার বক্তব্য, ঋণ দেওয়ায় ক্ষেত্রে যদি কোনও রকম ঝুঁকি থাকে, তবে কখনই তিনি ঋণ দেবেন না। কেউ ভালো বন্ধু হতে পারে তখন তাঁকে কফি খাওয়ানো যেতে পারে কিন্তু ওই অবধি। আদিত্য পুরি জানান, মালিয়ার আধিকারিকরা যখন তাঁর কাছে ঋণ চাইতে এসেছিলেন তখন তিনি বিষয়টি ভেবে দেখবেন বলেছিলেন। তখন তাঁর সহকর্মী তথা ব্যাংকের ডেপুটি এমডি পরেশ সুকান্থি তখন আদিত্য পুরিকে ঋণ দিয়ে মানা করেন । তিনিও সতর্ক হন৷