কলকাতা২৪x৭: লকডাউনের জেরে ২০১৯-২০ মরশুম বিঘ্নিত হয়েছিল ব্যাপকভাবে। গত মার্চ থেকে তিনমাস বন্ধ থাকার পর ফের জুনে শুরু হয়েছিল ইংল্যান্ডের প্রিমিয়র ডিভিশন ফুটবল লিগ। স্বাভাবিকভাবেই যথাসময়ের বেশ কিছুটা পরে গিয়ে নিষ্পত্তি হয়েছিল লিগের। আর গত জুলাইয়ে লিগ শেষ হওয়ার দেড়মাস অতিক্রান্ত হতে না হতেই ফের দামাম বেজে যাচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়র লিগের। শনিবার অর্থাৎ ১২ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে যাচ্ছে ২০২০-২১ মরশুমের ইংলিশ প্রিমিয়র লিগ।

ফের রহস্য-রোমাঞ্চে ভরা উইকেন্ডের অপেক্ষায় দিন গুনবেন ফুটবলপ্রেমীরা। শনিবার লিগের উদ্বোধনী ম্যাচে অবশ্যই মাঠে নামছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। প্রতিপক্ষ ১৬ বছর বাদে প্রিমিয়র লিগের আঙিনায় পা রাখতে চলা লিডস ইউনাইটেড। অর্থাৎ, প্রথম ম্যাচে আর্জেন্তাইন মার্সেলো বিয়েলসার সঙ্গে লিভারপুলের জার্মান কোচ জুর্গেন ক্লপের মগজাস্ত্রের লড়াই। গত মরশুমে একচ্ছত্র আধিপত্য নিয়ে তিন দশক পর চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল খেতাব ধরে রাখার অভিযান কীভাবে শুরু করে, দেখার অপেক্ষায় ফুটবল অনুরাগীরা।

অন্যদিকে ১৬ বছর পর প্রিমিয়র ডিভিশনে উন্নীত হওয়া তিনবারের চ্যাম্পিয়ন লিডসের কামব্যাক দেখতেও সমানভাবে উৎসাহী ফুটবল অনুরাগীরা। উল্লেখ্য, ম্যাঞ্চেস্টার সিটির রেকর্ড ১০০ পয়েন্ট অল্পের জন্য গত মরশুমে ছুঁতে ব্যর্থ হয়েছে ক্লপের লিভারপুল। তবে দ্বিতীয়স্থানে থাকা ম্যাঞ্চেস্টার সিটির থেকে ১৮ পয়েন্ট বেশি নিয়ে শিরোপা জিতেছে রেডস’রা। তৃতীয় এবং চতুর্থস্থানে শেষ করা ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড এবং চেলসির সঙ্গে লিভারপুলের পয়েন্টের ব্যবধান ছিল ৩৩। এখন দেখে নেওয়া যাক দর্শকহীন পরিমন্ডলে ম্যাচ নিয়ে উল্লেখযোগ্য কিছু তথ্য-

কোথায় অনুষ্ঠিত হবে ২০২০-২১ ইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচ?
নিজেদের হোম গ্রাউন্ড অ্যানফিল্ডে শনিবার লিডস ইউনাইটেডের মুখোমুখি হবে লিভারপুল।

ভারতীয় সময় কখন এই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে?
১২ সেপ্টেম্বর, শনিবার ভারতীয় সময় ঠিক রাত ১০টায় লিভারপুল বনাম লিডস ইউনাইটেড ম্যাচ উপভোগ করতে পারবেন ফুটবলপ্রেমীরা।

কোন টেলিভিশন চ্যানেল এই ম্যাচ সম্প্রচার করবে?
ভারতবর্ষে প্রিমিয়র লিগ সরাসরি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস নেটওয়ার্ক। অর্থাৎ, শনিবারও স্টার স্পোর্টস নেটওয়ার্কেই ইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচ উপভোগ করতে পারবেন অনুরাগীরা।

ম্যাচের লাইভ স্ট্রিমিং কোথায় দেখা যাবে?
স্টার স্পোর্টস নেটওয়ার্ক ছাড়াও ম্যাচের লাইভ স্ট্রিমিং অনুরাগীরা উপভোগ করতে পারবেন ডিজনি+হটস্টারে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।