নয়াদিল্লি: দেশে যতগুলি মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম রয়েছে নিঃসন্দেহে জনপ্রিয়তায় হোয়াটসঅ্যাপ তাঁদের সকলকে মাত দিয়েছে। মাঝে প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়ে ‘সিগন্যাল’ কিছুটা প্রচারের আলোয় এলেও এখন ফের ধীরে ধীরে নিজেদের জায়গা স্থিতিশীল করছে হোয়াটসঅ্যাপ। মার্ক জুকেরবার্গের এই প্রাইভেট মেসেজিং প্লাটফর্ম প্রায়ই নানান উপযোগী আপডেট এনে চমকে দেয় ব্যবহারকারীদের। এবারও তাঁর ব্যতিক্রম হল না।

আরও খবর পড়ুন – এই বাঙালির আন্দোলনে তৈরি হয় পুরুলিয়া, তিনি মানভূম কেশরী

এতদিন বেটা সংস্করণে থাকা ফিচার ‘মিউট ভিডিও’ এবার সকল ব্যবহারকারীদের জন্য সামনে আনল হোয়াটসঅ্যাপ। নিজেদের 2.21.3.19 ভার্সনে এই সুবিধা এনেছে মেসেজিং প্লাটফর্মটি। সম্প্রতি টুইটার অ্যাকাউন্টে এই নয়া ফিচারের কথা সামনে এনেছে হোয়াটসঅ্যাপ। আপাতত শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীদের জন্য এই বিশেষ সুবিধা আনা হয়েছে।

কী রয়েছে এই ফিচারে?

নতুন আপডেটে যুক্ত হওয়া এই ফিচারের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা কাউকে কোনও ভিডিও পাঠানোর আগে তাঁর সাউন্ড মিউট করতে পারবেন। নিজেদের টুইটে হোয়াটসঅ্যাপ লেখে, “আপনার চোখের জন্য, কানের জন্য না। এখন থেকে ভিডিও স্ট্যাটাসে দেওয়ার আগে বা কাউকে পাঠানোর আগে আপনারা ভিডিও মিউট করতে পারবেন।”

আরও খবর পড়ুন – কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির অদূরে বিক্ষোভ এসএসসি চাকরিপ্রার্থীদের

কীভাবে মিউট করবেন ভিডিও?

ব্যবহারকারীরা যখন প্লে স্টোরে গিয়ে তাঁদের হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপটি আপডেট করবেন তখন তাঁরা এই ফিচার পাবেন। ভিডিও শুট করার পর, এডিটিং স্ক্রিনে ওপরের দিকে বা দিকে আসবে এই ফিচার। এখানে একটি ভলিউম বাটন যুক্ত হয়েছে। সেটি টাচ করে ব্যবহারকারীরা মিউট করতে পারবেন ভিডিওটিকে। এমনটা করলে কোনও অডিও ছাড়া শুধু ভিডিওই পৌঁছে যাবে প্রাপকের কাছে, অথবা পোস্ট হবে স্ট্যাটাসে।

আরও খবর পড়ুন – বরফযুগে সমুদ্রতলে ব্যাপক পরিবর্তন আমেরিকার কুমিরকে টেনে এনেছিল ক্যারিবিয়ানে

আপাতত এই ফিচার শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরাই পাচ্ছেন। কবে এই ফিচার iOS এর জন্য আসবে সে সম্পর্কে এখনও কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.