স্বাগত নতুন বছর৷ ইংরাজি নববর্ষে শুভেচ্ছা৷ বর্ষবরণে মিশে থাকে আগামীর পথ চলার ভাবনা৷ এই লক্ষ্যে Kolkata 24×7 নতুন করে ভাবছে৷ এতে মিশে আছে ভবিষ্যৎ দেখার ইচ্ছে৷ আমরা এগিয়ে চলেছি, তাই পিছন ফিরে দেখা নয় আগামীকেই স্বাগত জানাচ্ছি৷ ২০১৮ সালের সম্ভাব্য কিছু ঘটনা তুলে ধরছি৷ বাংলা সংবাদমাধ্যমে এ এক ব্যতিক্রমী প্রচেষ্টা৷ দেশ থেকে বিদেশ, খেলা থেকে মেলা সমস্ত বিষয়ের সব খবর এক ক্লিকে৷ এই প্রতিবেদনে কলকাতা মহানগের দশদিক…

১) চাকা ঘুরবে পূর্ব থেকে পশ্চিমে
ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো৷ সল্টলেককে জুড়বে হাওড়ার সঙ্গে৷ দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষায় চাকরিজীবী থেকে সাধারণ মানুষ৷ সেই প্রতীক্ষার অবসান হতে পারে এবছর৷ আগামী বছরের জুনের মধ্যেই সেক্টর ৫ থেকে ফুলবাগান পর্যন্ত ট্রেন চলাচল শুরু হবে বলে আশা কর্তৃপক্ষের৷

২) মেট্রোয় চেপে দক্ষিণেশ্বরে
নোয়াপাড়া থেকে দক্ষিণেশ্বর পর্যন্ত মেট্রো চলাচলও এই বছরের শেষের দিকে শুরু হতে পারে৷ তবে পুরো অংশে এখনই চালু হচ্ছে না৷

৩) যানজট এড়িয়ে বিমানবন্দরে
সড়কপথে বিমানবন্দরে পৌঁছানোর সবচেয়ে বড় যন্ত্রণা যানজট৷ মেট্রোর উদ্যোগে সেই সমস্যা মিটতে পারে৷চলতি বছরে চালু হতে পারে নোয়াপাড়া থেকে এয়ারপোর্ট পর্যন্ত মেট্রো৷

৪) বাইপাসে মেট্রো
নিউ গড়িয়া থেকে এয়ারপোর্ট পর্যন্ত মেট্রো প্রকল্পের একাংশের শুভ সূচনাও এবছরই৷নিউ গড়িয়া থেকে রুবি পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবা ২০১৮- র শেষের দিকে চালু হয়ে যেতে পারে৷

৫) দূষণমুক্ত পরিবহণ
নিউটাউনের পর এবার কলকাতাতেও কয়েকটি রুটে ইলেক্ট্রিক বাস চালু করতে চাইছে সরকার৷ শহরকে দূষণমুক্ত করতে এই উদ্যোগ৷ নতুন বছরের শেষের দিকে সেই পরিষেবা মিলতে চলেছে৷

৬) রাতভর বাস
রাতের শহরে চলাচলকারীদের সুবিধার কথা ভেবে নাইট সার্ভিস নতুন বছরেই চালু করবে সরকার৷ প্রাথমিক ভাবে হাওড়া-শিয়ালদহ ও বিমানবন্দরের মধ্যে চলবে এই বাসগুলি৷ মূলত হাওড়া ও শিয়ালদহ স্টেশনে রাতে আসা ট্রেনের যাত্রী ও বিমানবন্দরে যাওয়া-আসার জন্য যাত্রীদের জন্যই নেওয়া হয়েছে এই পরিকল্পনা৷

৭) সায়েন্স সিটি থেকে রেসকোর্স
মা উড়ালপুল থেকে এতদিন সরাসরি এজেসি বসু রোডের উড়ালপুল ধরে রেস কোর্স যাওয়া যেত না৷ অবশেষে সেটাও সম্ভব হবে৷ উড়ালপুলের ওই অংশের কাজ প্রায় শেষের মুখে৷ আগামী জুলাইতে মা উড়ালপুল পশ্চিমগামী অংশ খুলে দেওয়া হচ্ছে৷ এবার সায়েন্স সিটি থেকে সরাসরি রেস কোর্স যাওয়া যাবে কয়েক মিনিটে৷

৮) পার্কিং অ্যাপ
কলকাতা পুলিশ নতুন বছরেই শহরবাসীর পার্কিং যন্ত্রণা মুছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে৷ চালু হতে চলেছে নতুন ‘পার্কিং অ্যাপ’৷ ঘরে বসেই আপনার গন্তব্যের ধারে কাছে কোথায় পার্কিং এর জায়গা আছে জেনে নিন৷ আর সেই মতো আগাম বুক করে রাখুন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I