নয়াদিল্লি: কেরলের বিমানবন্দরে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে গত শুক্রবার রাতে। রানওয়ে পেরিয়ে ৩৫ ফুট নীচে পড়ে যায় ওই বিমান। স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় প্রাণে বাঁচেন অনেকে। তবে মৃত্যু হয়েছে ১৮ জনের। মৃতদের মধ্যে রয়েছে পাইলট, কো-পাইলটও।

বিমান দুর্ঘটনার পর প্রথম পাঁচ মিনিট ঠিক কী হয়েছিল? সিআইএসএফের রিপোর্টে উঠে এসেছে সেই তথ্য।

7:40 pm: প্রচণ্ড বৃষ্টিতে রানওয়ে পেরিয়ে খাদে পড়ে গেল এয়ার ইন্ডিয়ার বোয়িং ৭৩৭ বিমান। ৩৫ ফুট নীচে পড়ে যায় বিমানটি। সিআইএসএফ-কে প্রথম ফোনটা করা হয়।

৮ নম্বর গেটে ছিলেন অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর অজিত সিং। তিনি ওয়াকি টকিতে ফোন করেন সিআইএসএফের কন্ট্রোল রুমে। বিমানটি দেখার সঙ্গে সঙ্গে ফোন করেন তিনি।

7:41 pm: সিআইএসএফের কন্ট্রোল রুম থেকে ফোন যায় এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমে ও সিআইএসএফ কুইক রেসপন্স টিমের কাছে।

7:42 pm: এয়ার ফোর্স ফায়ার স্টেশনকে বিষয়টা জানানো হয়।

7:43 pm: সিআইএসএফ ফোন করে এয়ারপোর্টের হেল্থ ডিপার্টমেন্টকে। ততক্ষণে ভেঙে দু’টুকরো হয়ে গিয়েছে সেই বিমান।

7:44 pm: সিআইএসএফের কন্ট্রোল রুম থেকে টার্মিনাল ম্যানেজারকে ফোন করা হয়। এয়ারপোর্ট ডিরেক্টরকেও ফোন করা হয়। ফের ফোন যায় স্বাস্থ্য বিভাগে।

7:45 pm: এরপর সিআইএসএফের কন্ট্রোল রুম থেকে স্থানীয় পুলিশকে তথ্য জানানো হয়।

শুক্রবার সন্ধেয় কেরলের কোঝিকোড়ে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা ঘটনা ৷ অবতরণের সময় রানওয়েতে পিছলে গিয়ে দু’টুকরো হয়ে যায় এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের বিমানটি ৷ খাদে পড়ে দু’টুকরো হয়ে যায়। এয়ার ইন্ডিয়া বিমানটি দুবাই থেকে কোঝিকোড় (কালিকট)-এর উদ্দেশে শুক্রবার বিকেলে ১৮৪ জন যাত্রী ও ৭ জন বিমানকর্মী-সহ মোট ১৯১ জনকে নিয়ে রওনা দেয়।

ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় অন্তত ১৯ জনের। কেরলের বিমানবন্দরে অবতরণের সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে। শুক্রবার রাতে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা ঘটে। কেরলের এই কোঝিকোড় বিমানবন্দর ভারতের অন্যতম ঝুঁকিপূর্ণ বিমাবন্দরগুলির মধ্যে একটি। আর সেখানেই এই দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ৩৫ ফুট উঁচু থেকে পড়ে যায় বিমানটি। আর তার ফলেই এই দুর্ঘটনা ঘটে।

ভারতের বন্দে ভারত মিশনের অধীনেই এই বিমান দুবাই থেকে আসছিল। সেখান থেকে আটকে থাকা যাত্রীদের নিয়ে আসা হচ্ছিল। কোঝিকোড়ের কারিপুর এয়ারপোর্টের রানওয়ে পেরিয়ে পড়ে যায় বিমানটি।

ভারতের অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী বলেন, বৃষ্টির জন্যই এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে। খারাপ আবহাওয়ার জন্য ৩৫ ফুট গভীরে পড়ে যায় বিমানটি। আর তাতেই দু ভাগে ভেঙে যায় ওই বিমান।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।