নয়াদিল্লিঃ   ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘মেকুনু’। আরব সাগরে সেটি তৈরি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব দেশের পশ্চিম উপকূলে পড়বে না বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। তবে শেষ পর্জায়ে কোনদিকে ঘরে পরিস্থিতি ঘরে সেদিকে সর্বক্ষণ নজর রাখা হচ্ছে। তবে এটির প্রভাবে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর কেরল উপকূল দিয়ে স্থলভূমিতে প্রবেশ ত্বরান্বিত হতে পারে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর ইতিমধ্যে জানিয়েছে, এবার ২৯ মে নাগাদ কেরলে বর্ষা ঢুকে পড়তে পারে।

অন্যদিকে শুধু মেকুনু নয়। আরব সাগরে তৈরি হয়েছে আরও একটি সাইক্লোন। যার নাম দেওয়া হয়েছে সাইক্লোন ‘সাগর’। কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, আগামী ২৬ মে নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টি ইয়েমেন-ওমান উপকূল অতিক্রম করবে।

ঘূর্ণিঝড়টি ঢুকে পড়ার পর ‘সোমালিয়া কারেন্ট’ সক্রিয় হবে। যা কেরলে বর্ষার আগমনকে ত্বরান্বিত করবে। আরব সাগরে থাকা ঘূর্ণিঝড়টি বেশ শক্তিশালী। অতি তীব্র ঘূর্ণিঝড় হিসেবে এটি উপকূলে আছড়ে পড়বে। ঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫০-১৬০ কিলোমিটার হবে বলে ইতিমধ্যে আশঙ্কা করছেন আবহাওয়াবিদরা।