সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় : বোমা নয় সামান্য কয়েকটা টমেটো ছুঁড়ে মেরেছে ভারত। এতেই পাকিস্তানের পশ্চাৎ লাল হয়ে গিয়েছে। এমনটাই তাঁর ভিডিওতে বলছেন আফগানিস্তানের ‘পাঠান ভাই’। এরপরে না শুধরোলে বড় বড় তরমুজ ছুঁড়বে। তখন কি অবস্থা হবে তা ভেবে নিয়ে পাকিস্তানকে শুধরে যেতে বলছেন তিনি।

ভিডিওর শুরুতে ‘পাঠান ভাই’ ট্রেড মার্ক হাসি দিয়ে শুরু করেন। তবে এদিনের ভিডিওর হাসি একটু বেশীক্ষণই ছিল। কারন আজ তিনি দারুণ খুশি। সৌজন্যে ভারতের ‘sergical strike 2.0’। বেশ কিছুক্ষন হাসির পরেই তিনি সোজা চলে আসেন টমেটো প্রসঙ্গে। তাঁর পিছনদিকের দেওয়ালে আটকানো ছিল নরেন্দ্র মোদীর ছবি। সেই ছবির দিকে তাকিয়ে তিনি বলেন, “এই যে পাকিস্তানিরা এনাকে চিনতে পারছেন কি? ইনি নরেন্দ্র মোদী। যদি না চেনেন তাহলে চিনে নিন ভালো করে।”

এরপরেই তিনি বলেন, “এতদিন পাকিস্তানিরা খুব বলছিলেন টমেটো দেবেন না দিতে হবে না। আরে ভাই আজ মোদি ট্রাকে করে টমেটো দেননি। তিনি আজ টমেটো পাঠিয়ে দিয়েছেন এক্কেবারে প্লেনে করে। কেমন লাগছে টমেটো খেয়ে। এই টমেটো খেয়েই এই অবস্থা?” একইসঙ্গে তিনি বলেন, “এতদিন পাকিস্তানিদের টমেটো খেয়ে গাল লাল হয়ে থাকত। আজ সকালে ভারতের পাঠানো টমেটো গুলো খেয়ে আপনাদের কোনটা লাল হয়ে গিয়েছে বুঝতে পারছেন তো। আর বললাম না।”

ভিডিওতে তিনি এও বলেছেন, “আজ আমি এতটাই খুশি যে আজ জল খাবার কিছুই খেতে ইচ্ছা করছে না শুধু হাসতে ইচ্ছা করছে।” এরপরেই তিনি আবারও ফিরেছেন টমেটো প্রসঙ্গে। তিনি বলেন, “আজকে টমেটো পড়েছে পাকিস্তানে। সেটাতেই অবস্থা খারাপ হয়ে গিয়েছে। এবার যদি না শুধরে যাও তাহলে এবার তরমুজ পড়বে আকাশ থেকে। বিশাল বড় বড় তরমুজ। সেগুলোতে লেখা থাকবে জয় হিন্দ , জয় ভারত।”

নিজেদের জমিতে কষ্ট করে ফলানো ফসল পাকিস্তানকে বিক্রি করব না। পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলারর ঘটনার পর এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলন মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়া জেলার টমেটো চাষিরা। মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়া জেলায় প্রতি বছর প্রচুর পরিমাণে টমেটো চাষ হয়। সেই টমেটোর বেশির ভাগটাই রফতানি হয় অন্য দেশে। পাকিস্তানে এই ভারতীয় টমেটোর বেশ চাহিদা রয়েছে। ভারতের থেকে প্রতিবছর বিপুল পরিমান টমেটো কেনে পাকিস্তান। পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার ঘটনার পর ক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়ে দেশ জুড়ে। আর সেই ক্ষোভে সামিল হন ঝাবুয়ার টমেটো চাষিরা। খেতের টমেটো খেতেই পচে যাক, তবুও বিক্রি করব না পাকিস্তানের কাছে। সাফ জানিয়ে দেন চাষিরা।

এই প্রসঙ্গকে টেনে গত শনিবার পাকিস্তানের একটি টিভি চ্যানেলের কায়সার খকন নামের এক সাংবাদিক বলেছিলেন, ‘পাকিস্তানে টমেটো রফতানি বন্ধ করে দিয়ে ভারত খুবই হীনমন্যতা দেখিয়েছে। সময় এসে গেছে, পাকিস্তান এই টমেটোর জবাব ‘পরমাণু বোমা’ দিয়ে দেবে। সেই টমেটো ও পরমানুর উত্তরই যেন ছিল ভারর বন্ধু আফগানিস্তানের ‘পাঠান ভাইয়ের’।

মঙ্গলবার ভোর রাতে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে অধিকৃত কাশ্মীরের জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলা চালায় ভারতীয় বায়ু সেনা। ভারতীয় যুদ্ধবিমান মিরাজ ২০০০-এর সাহায্যে এদিন ভোর সাড়ে তিনটে নাগাদ ওই হামলা চালায়। মুজফফরাবাদ সেক্টরের সকল জঙ্গি ঘাঁটি সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দেয় বলে জানা যায় ভারতীয় বায়ুসেনা সূত্রে। ১০০০ পাউন্ড বোমা বর্ষণ করা হয়। এতেই উড়ে যায় একের পর এক পাক জঙ্গি ঘাঁটি।

মোদীর ছোঁড়া টমেটোয় কাত পাকিস্তান – পাঠান ভাই

মোদীর ছোঁড়া টমেটোয় কাত পাকিস্তান – পাঠান ভাই

Kolkata24x7 यांनी वर पोस्ट केले मंगळवार, २६ फेब्रुवारी, २०१९