কিংস্টোন: ফলো-অনের লজ্জা থেকে মুক্তি দিলেও জামাইকা টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জয়ের জন্য বিশাল লক্ষ্যমাত্রা দিল ভারত৷ প্রথম ইনিংসে টিম ইন্ডিয়ার ৪১৬ রানের জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অল-আউট হয়ে যায় মাত্র ১১৭ রানে৷ ২৯৯ রানের বড় লিড নিয়েও ভারত ক্যারিবিয়ানদের পুনরায় ব্যাট করতে না-ডেকে নিজেরাই দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট হাতে মাঠে নামার সিদ্ধান্ত নেয়৷

দ্বিতীয় দফায় ৫৪.৪ ওভার ব্যাট করে ভারত ৪ উইকেটে ১৬৮ রান তুলে ইনিংস ডিক্লেয়ার করে দেয়৷ অনবদ্য হাফ-সেঞ্চুরি করেন অজিঙ্কা রাহানে ও হনুমা বিহারী৷ প্রথম ইনিংসের লিড মিলিয়ে ভারতের ঝুলিতে রানসংখ্যা দাঁড়ায় ৪৬৭৷ অর্থাৎ কিংস্টোনে জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রয়োজন ৪৬৮ রান৷

আরও পড়ুন: ঘাড়ে বল লেগে হাসপাতালে ভারতীয় ক্রিকেটার

শেষ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেও অবশ্য স্বস্তিতে নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ৷ তৃতীয় দিনের শেষ ১৩ ওভার ব্যাট করে মাত্র ৪৫ রান তুলতেই ২টি উইকেট হারিয়ে বসেছে ক্যারিবিয়ানরা৷ অর্থাৎ ভারতের থেকে এখনও ৪২৩ রানে পিছিয়ে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ৷ ৮ উইকেট হাতে নিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যাওয়া কার্যত অসম্ভব দেখাচ্ছে হোল্ডারদের৷

সাবাইনা পার্কের দ্বিতীয় দিনে হনুমা বিহারী টেস্ট কেরিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন৷ ইশান্ত শর্মা টেস্টে প্রথমবার হাফসেঞ্চুরির গণ্ডি টপকান৷ জসপ্রীত বুমরাহ টেস্ট কেরিয়ারে প্রথমবার হ্যাটট্রিক করার কৃতিত্ব অর্জন করেন৷ এমন ঘটনাবহুল দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়ে ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে তুলে নিয়েছিল ভারত৷ তৃতীয় দিনেও সেই দাপটটাই বজায় রাখে টিম ইন্ডিয়া৷

আরও পড়ুন: টেলরের ব্যাটে শ্রীলঙ্কাকে হারাল নিউজিল্যান্ড

গত দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান কর্নওয়াল ও হ্যামিল্টন কেরিয়ারের প্রথম টেস্ট ইনিংসে আউট হন যথাক্রমে ১৪ ও ৫ রান করে৷ কর্নওয়ালের উইকেটটি তুলে নেন মহম্মদ শামি৷ হ্যামিল্টনকে ফেরত পাঠান ইশান্ত শর্মা৷ ১৭ রান করে কেমার রোচ রবীন্দ্র জাদেজার বলে আউট হতেই যবনিকা পড়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসে৷ গ্যাব্রিয়েল নট-আউট থাকেন শূন্য রানে৷

প্রথম ইনিংসে বুমরাহ ২৭ রানের বিনিময়ে ৬টি উইকেট দখল করেন৷ এটি তাঁর টেস্ট কেরিয়ারের সেরা বোলিং পারফরম্যান্স৷ তাঁর আগের সেরা বোলি পারফরম্যান্স ছিল ৩৩ রানে ৬ উইকেট৷ শামি নেন ৩৪ রানে ২টি উইকেট৷ ইশান্ত ও জাদেজা ১টি করে উইকেট নিয়েছেন৷

আরও পড়ুন: আঙুল ভেঙে সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন বিশ্বকাপের তারকা

দ্বিতীয় ইনিংসে দুই ভারতীয় ওপেনার লোকেশ রাহুল ও মায়াঙ্ক আগরওয়াল ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন৷ লোকেশ ৬ ও মায়াঙ্ক ৪ রান করে আউট হন৷ বিরাট কোহলি ক্রিজে এসে প্রথম বলেই কট-বিহাইন্ড আউট হন৷ পূজারা ২৭ রান করে সাজঘরে ফেরেন৷ রাহানে ৬৪ ও বিহারী ৫৩ রানে অপরাজিত থাকেন৷ রোচ দ্বিতীয় ইনিংসে ৩টি উইকেট নেন৷

দিনের শেষ বেলায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাট করতে নামলে ব্রাথওয়েটকে ৩ রানে আউট করেন ইশান্ত শর্মা৷ ১৬ রান করে শামির বলে আউট হয়েছেন ক্যাম্পবেল৷ ব্র্যাভো ১৮ ও ব্রুকস ৪ রানে অপরাজিত রয়েছেন৷