সাউদাম্পটন: করোনা আবহে প্রথম টেস্ট ম্যাচ জিতে ক্রিকেটের পুনরুত্থান হল সেই ক্যারিবিয়ানদের হাতে৷ রবিবার অ্যাজাস বোলে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট রুদ্ধশ্বাস জয় ছিনিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ এগিয়ে গিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ৷ করোনা পরিস্থিতিতে উইন্ডিজের এই জয় টেস্টের ক্রিকেটের সেরা বিজ্ঞাপন বলে মনে করছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি৷

চার মাস পর বাইশ গজের লড়াইয়ে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আন্ডারডগ হিসেবে শুরু করেছিল ক্যারিবিয়ানরা৷ কিন্তু সেখান থেকে ম্যাচের শেষ দিন দুরন্ত জয় ছিনিয়ে নেয় জেসন হোল্ডারের দল৷ শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের দুরন্ত বেলিং এবং জারমেনি ব্ল্যাকউডের লড়াকু ৯৫ রানের ইনিংসে ভর করে ম্যাচ জিতে নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ৷

ক্যারিবিয়ানদের এই জয় নিয়ে টুইটারে বিরাট কোহলি লেখন, “Wow @windiescricket what a win. Top display of test cricket.” অর্থাৎ দুর্দান্ত, উইন্ডিজের এই জয় টেস্ট ক্রিকেটের জন্য দারুণ বিজ্ঞাপন৷

বোলারদের গড়ে দেওয়া মঞ্চে দ্বিতীয় ইনিংসে জারমেইন ব্ল্যাকউডের দৃঢ়চেতা ব্যাটিং প্রথম টেস্টে জয় এন দেয় ক্যারিবিয়ানদের। ২০০ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে ২৭ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে এক সময় হারের ভ্রুকুটি তাড়া করছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। স্বল্প রান তাড়া করতে নেমে প্রয়োজন ছিল দু-একটি লম্বা পার্টনারশিপের। রস্টন চেজ এবং শেন ডাউরিচকে সঙ্গে নিয়ে দলকে লক্ষ্যমাত্রার কাছাকছি পৌঁছে দিয়েছিলেন ব্ল্যাকউড। আর শেষ করেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার এবং জন ক্যাম্পবেল।

ম্যাচ জেতার পর ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক ক্যাম্পবেল বলেন, ‘ঠিক সময়ে আমাদের এটা দারুণ জয়৷ আমরা দল হিসেবে খেলেছি৷ আগের দিনটা ছিল সম্ভবত আমার টেস্টের কেরিয়ারের সেরা দিন৷ কাজটি কঠিন ছিল৷ বোলাররা আমাদের জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিল৷’

প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেটের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেট দখল করলেন ক্যারিবিয়ান পেসার গ্যাব্রিয়েল। চতুর্থদিন জ্যাক ক্রলের ৭৬ এবং অধিনায়ক বেন স্টোকসের ৪৬ রানে ভর করে বড় রানের লক্ষ্যমাত্রা দেওয়ার দিকে এগোলেও গ্যাব্রিয়েলের দাপুটে পেসের সামনে ২০০ রানের বেশি টার্গেট সেট করতে পারেনি ইংরেজরা।

রান তাড়া করতে নেমে জন ক্যাম্পবেল প্রাথমিক অবস্থায় আহত এবং অবসৃত হয়ে মাঠ ছাড়েন। বিপাকে পড়ে যাওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টেনে তোলেন রস্টন চেজ-জারমেইন ব্ল্যাকউড জুটি। চতুর্থ উইকেটে এই দুই ব্যাটসম্যানের ৭৩ রানের পার্টনারশিপ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে লড়াইয়ে ফেরায়৷ তারপর ইংরেজ বোলারদের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়ান ব্ল্যাকউড। কিন্তু শতরান থেকে পাঁচ রান দূরে দাঁড়িয়ে হঠাতই ছন্দপতন।

দলীয় ১৮৯ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৯৫ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ব্ল্যাকউডকে। তবে তাতে জয় আটকায়নি ক্যারিবিয়ানদের। ফের ব্যাট করতে নামেন ওপেনার ক্যাম্পবেল। তাঁকে নিয়েই অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক হোল্ডার। ৪ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় উইন্ডিজ৷

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।