কলকাতা: রাজ্যের ইএসআই হাসপাতালগুলিকে আধুনিকীকরণ পথে হাঁটছে রাজ্য সরকার৷নবান্ন সূত্রে খবর, দু’পর্যায়ে হবে এই আধুনিকীকরণের কাজ৷ প্রথম ধাপে, কলকাতা, বজবজ, আসানসোল, শ্রীরামপুর এবং উলুবেড়িয়ার হাসপাতালগুলির আধুনিকীকরণ করা হবে বলে জানা গিয়েছে৷

আধুনিকীকরণের পর ধাপে ধাপে এই হাসপাতালগুলিতে চালু করা হবে আইসিউই ও এসএনএসইউ পরিষেবা৷ পরবর্তীতে রাজ্যের বাকি ইএসআই হাসপাতালগুলির আধুনিকীকরণ করা হবে বলে নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে৷

আরও পড়ুন: দুদিনের উত্তরবঙ্গ সফরে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

এই মুহূর্তে রাজ্যে ১৪টি ইএসআই হাসপাতাল রয়েছে৷ কামারহাটি, শিয়ালদহ, শ্রীরামপুর, বেলুড়, বালটিকুড়ি, উলুবেড়িয়া, কল্যাণী, গৌরহাটি, বজবজ, মানিকতলা, আসানসোল, ব্যান্ডেল, দুর্গাপুর, ঠাকুরপুকুর৷ মোট বেডের সংখ্যা ৩০০০ এরও বেশি৷ মানিকতলার হাসপাতালটি রেফারাল হাসপাতাল তাই এখানে বেডের সংখ্যা সর্বাধিক ৫০০৷ বেলুড়ের হাসপাতালটি টিবি রোগীদের জন্য এবং শিয়ালদার হাসপাতালটিতে অনকলোজি ও পেন ম্যানেজমেন্ট ইউনিট আছে৷

আরও পড়ুন: স্বাস্থ্যভবনে বিক্ষোভ মৃত্যু, ভাঙচুর স্বাস্থ্য সচিবের দফতরে

Employees State Insurance (ESI) Scheme এ নথিভুক্ত কর্মচারীরা ইএসআই হাসপাতালের সুবিধাভোগ করতে পারেন৷ শ্রমদপ্তরের অন্তর্গত Directorate of ESI (Medical Benefit) Scheme এর মাধ্যমে পাওয়া যায় এই সুবিধাগুলি৷ সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছরের শুরুতেই ধীরে ধীরে সংস্কারের কাজ শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।