স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: একাধিক কারণে নিজেদের দাবি দাওয়া তুলে ধরে অবস্থান থেকে অনশনে সামিল হচ্ছেন রাজ্যের শিক্ষকরা। কিন্তু তা করতে গিয়ে স্কুলে গরহাজির থাকছেন শিক্ষকরা। বাদ যাচ্ছে ক্লাস। ক্ষতি হচ্ছে পড়ুয়াদের। তাই এই সমস্ত শিক্ষকদের হাতে শোকজ নোটিশ ধরাল রাজ্য শিক্ষা দফতর।

অনশন করতে গিয়ে ক্লাস কামাই হচ্ছে। শিক্ষকরা স্কুলে উপস্থিত না থেকে সামিল হচ্ছেন ধর্না মঞ্চে। তাই এই স্কুলে অনুপস্থিত থাকা সমস্ত শিক্ষকদের এমন নোটিশ দেওয়া হয় শিক্ষা দফতরের কমিশনারের তরফে।

রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠনের নেতাদের মেল আই ডি-তে পৌঁছে যায় এমন নোটিশ। তাতেই ক্ষুব্ধ হয়ে বুধবার শিক্ষামন্ত্রীর দ্বারস্থ হন রাজ্যের শিক্ষক সংগঠনের কয়েক জন নেতা। এমন নোটিশ পেয়েই এদিন সরাসরি শিক্ষামন্ত্রীর দ্বারস্থ হন বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতির নেতা স্বপন মণ্ডল। এদিন বিকাশ ভবনে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন তিনি। তাঁর কাছে যে এমন মেল এসেছে তা তিনি জানান। তাঁর সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যান উস্থি সংগঠনের নেতা গোপাল সরকারও।

স্বপন বাবুর কথায়, “আমরা নিজেদের কাজে ছুটি নিয়ে থাকি। আর এই মুহূর্তে নিজেদের দাবি-দাওয়া তুলে ধরা আমাদের সবচেয়ে বড় কাজ। তাহলে আমাদের এমন নোটিশ পাঠানো হবে কেন? শিক্ষামন্ত্রী অবশ্য বলেছেন তিনি এবিষয়ে অবগত নন। আর সবচেয়ে বড় কথা ওই শোকজ নোটিশে লেখা আছে, সরকারের বিরোধিতামূলক আন্দোলনে সামিল অনুপস্থিত শিক্ষকদের শোকজ করা হল। এর মানে টা কি?”

যদিও এবিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সংবাদমাধ্যমকে এদিন জানান, “আমার কাছে এইরকম কোন খবর নেই। আমি জানি না।“