তৃণমূলের ‘যোগ’ বুঝে জলপাইগুড়ির শিশুপাচারে সিবিআই চাইছে বিজেপি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: জলপাইগুড়ির হোমে শিশুপাচার চক্রের সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের ‘যোগ’ প্রকাশ্যে আসতেই, সিবিআই তদন্তের দাবি জানাল রাজ্য বিজেপি৷ শনিবার দলের ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও ফুটেজে এমনই দাবি করেছেন বঙ্গ বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একই মঞ্চে শিশুপাচার চক্রে ধৃত মানস ভৌমিকের যে ছবি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে, সেটাকেই হাতিয়ার করেছেন সায়ন্তন বসু৷

জলপাইগুড়ির ওই হোমে শিশুপাচার চক্রের মূল চক্রী চন্দনা চক্রবর্তীর ভাই মানস ভৌমিক৷ গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে সরকারি এক অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের ভূমিকায় কাজ করেছে মানস ভৌমিক৷ এই ছবি শুক্রবার সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়৷ তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে তার যোগের বিষয়টি মানস ভৌমিক সংবাদমাধ্যমেও স্বীকার করেছে৷ সে এমনও জানিয়েছে, শাসক দলের সদস্য, তাও তাকে গ্রেফতার করা হল৷ এমন ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক বলেও উঠে এসেছে তার কথায়৷ এখান থেকেই রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, ‘শাসকদলের সদস্য হলেই কি সাত খুন মাফ?’

আর, এই সম্ভাবনাকে উস্কে দিয়ে রাজ্য বিজেপির দাবি, যেহেতু শিশুপাচারের সঙ্গে শাসকদলের ‘যোগাযোগ’ সামনে আসছে, তাই সিআইডি-র পক্ষে এই ঘটনার সবিস্তার তদন্ত করা সম্ভবপর হবে না৷ তাই ঘটনার মূলে পৌঁছনোর জন্য চাই সিবিআই তদন্ত৷ ইউটিউবে প্রকাশিত ওই ভিডিও-তে বঙ্গ বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুর, ‘ধৃতের সঙ্গে তৃণমূলের অনেক বড় বড় নেতা ও আধিকারিকের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আছে৷ আমাদের সন্দেহ সিআইডির মাধ্যমে এই তদন্ত চালানো আর সম্ভবপর নয়৷ কারণ রাজনৈতিক গুরু বা পলিটিক্যাল বসেদের বিরুদ্ধে সিআইডি আর তদন্ত করতে পারবে না৷’

- Advertisement -

শিশুপাচারের এই ঘটনায় বিজেপির মহিলা মোর্চার সদস্য জুহি চৌধুরীর নাম জড়িয়ে গিয়েছে৷তার জেরে বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে দল৷ ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে, তৃণমূল কংগ্রেসের ‘যোগ’ প্রকাশ্যে আসতেই শিশুপাচারের ঘটনায় তেড়েফুঁড়ে আন্দোলনে নামতে চাইছেন রাজ্য বিজেপির নেতারা৷ প্রথমে ‘ব্যাক ফুটে’ চলে যাওয়ার পরে, এ বার ‘কাউন্টার অ্যাটাকে’র পথেই হাঁটতে শুরু করেছে রাজ্যের গেরুয়া শিবির৷
ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন: ভিডিও সৌজন্য: পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি

All rights reserved by @ Kolkata24x7 II প্রতিবেদনের কোন অংশ অনুমতি ছাড়া প্রকাশ করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
-