বিকেল ৫.৪২: বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৭৬ শতাংশ।

বিকেল ৫.৩৬: শেষ মুহূর্তে উল্টোডাঙায় ঝামেলা।

বিকেল ৫.০৫: এন্টালিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে এক শিশুর উপর লাঠিচার্জ করার অভিযোগ।

বিকেল ৪.৫০: ট্যাংরায় জমায়েত সরাতে উত্তেজনা। কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে অকারণে লাঠিচার্জের অভিযোগ।

বিকেল ৪.২৯: বিজেপি এজেন্টকে বুথের বাইরে বসিয়ে রাখার অভিযোগ উঠল জোড়াসাঁকোর ২৩২ নম্বর বুথে। প্রিসাইডিং অফিসার জানাচ্ছেন, সামাজিক দূরত্ব বিধি মানার জন্যই ওই এজেন্টকে বাইরে বসিয়ে রাখা হয়।

বিকেল ৪.১৫: মুর্শিদাবাদে ভোট দিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

দুপুর ৩.৪০: অষ্টম দফায় বিকেল ৩ টে পর্যন্ত ভোট পড়ল ৬৮.৪৬ শতাংশ। এর মধ্যে বীরভূমে পড়েছে সব থেকে বেশি ভোট, ৩ টে পর্যন্ত পড়েছে ৭৩.৯২ শতাংশ ভোট। মুর্শিদাবাদে ভোট পড়েছে ৭০.৯১ শতাংশ, মালদহে ৭০.৫৮ শতাংশ। কলকাতা উত্তরে ভোট পড়েছে সবচেয়ে কম, ৩ টে অবধি সেখানে ভোট পড়েছে ৫১.৪০ শতাংশ।

দুপুর ৩.২০: বোলপুরের ধরমপুরে ভাঙচুর করা হল বিজেপি প্রার্থীর গাড়ি। লাঠি দিয়ে ভেঙে ফেলা হয় গাড়ির কাঁচ। বিজেপি প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়-এর গাড়িত ওপর এই হামলা চালানো হয়। এমনকি বিজেপি প্রার্থীকে বাঁশ নিয়ে তাড়া করা হয় বলেও দাবি।

 দুপুর ৩.০৫: যুব তৃণমূল নেতার গাড়িতে হামলার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। মালদহের মানিকচকের যুব তৃণমূল নেতা রেজাউল আলির গাড়িতে হামলার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনায় অভিযোগের তির বিজেপির দিকে। অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি।

দুপুর ২.৫২: তেলেঙ্গাবাগানে তৃণমূল কর্মীদের মারধরের অভিযোগ কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে। বেআইনি জমায়েত হঠাতে লাঠিচার্জ করে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

দুপুর ২.৪০: নানুরে ভোটার কার্ড কেড়ে ভোটারদের ভোট দিতে বাধা দিতে যাওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

দুপুর ২.৩২: মুর্শিদবাদের ডোমকলের নস্করপুরে বালতির মধ্যে বোমা রয়েছে বলে সন্দেহ। ঘটনাস্থলে পুলিশ। আসছে বোম ডিসপোজাল স্কোয়াড। সকালেই এলাকায় বোমা বিস্ফোরণ হয়।

দুপুর ২.০৯: খরগ্রাম বিধানসভায় প্রতিবেশির হয়ে ভোট দেওয়ার অভিযোগ। আটক করে বুথে বসিয়ে রাখলেন সেক্টর অফিসার।

দুপুর ২.০৭: মালদায় ভোট দিতে গিয়ে নিজের নাম মৃতের তালিকায় দেখলেন জীবিত ভোটার। পরিচয় পত্র নিয়ে বিডিও অফিসের দ্বারস্থ তিনি।

দুপুর ২.১০: কুুমোরটুলিতে অবৈধ জমায়েত হটিয়ে দিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। তৃণমূলের অভিযোগ তাঁরা শান্তিপূর্ণভাবে বসেছিলেন। জোর করে তাদের সরিয়ে দেয় কেন্দ্রীয় বাহিনী।

দুপুর ২.০৫:  মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হল খয়রাশোলে। যেখান সকেট বোমা পাওয়া গয়িছিল তার কিছুটা দূরে ঘটনাটি ঘটে। বিজেপি সমর্থকদের মারধর করার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূলের।

দুপুর ২.০০: পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে ইলামবাজারে

দুপুর ১.৪৮: ইলামবাজারে বিজেপি প্রার্থীকে ঘিরে বিক্ষোভ। পুলিশের সামনেই হাতাহাতি, মারধর। কমিশনে নালিশ অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়ের।

দুপুর ১:৩০: মহাজাতি সদনের সামনে যে বড় বোম পাওয়া গিয়েছিল তা আসলে চকলেট বোম বলে রিপোর্টে জানাল নির্বাচন কমিশন। রিপোর্টে উল্লেখ, এক্সপার্ট টিম জানিয়েছে, ওগুলি আসলে চকলেট বাজি

দুপুর ১:১০: বোলপুরে খোস মেজাজে অনুব্রত মণ্ডল। ভোট দিয়ে এলেন তৃণমূল জেলা সভাপতি।

দুপুর ১:০৫: বৈষ্ণবনগরে তৃণমূল-বিজেপি কর্মীর মধ্যে বাদানুবাদ। বিজেপি কর্মীকে ধারালো কাঁচি দিয়ে আঘাতের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

দুপুর ১২:৫০: নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, অষ্টম দফার নির্বাচনে দুপুর ১২টা ৩০ পর্যন্ত মোট ভোটের হার ৩৭.৮৯ শতাংশ। বীরভূমে ৩৮.১০ শতাংশ, উত্তর কলকাতায় ২৭.৬৫ শতাংশ, মালদায় ৪২.১৬ শতাংশ, মুর্শিদাবাদে ৪১.০১ শতাংশ ভোট পড়েছে।

দুপুর ১২:৪৫: দফায় দফায় উত্তপ্ত হয়ে উঠছে মানিকতলা বিধানসভা কেন্দ্র। ১৬৭ নম্বর বুথে ফের বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবেকে ঘিরে বিক্ষোভ। তৃণমূলের অভিযোগ, কল্যাণ চৌবে ভোটারদের প্রভাবিত করছেন ।ভোট রিগিংয়ের অভিযোগ তুললেন কল্যাণ চৌবে।

দুপুর ১২:৪০: হরিহরপাড়া বিধানসভাকেন্দ্রের ১৩৬ এবং ১৩৭ নম্বর বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে লাঠিচার্জের অভিযোগ উঠলো। মাথা ফাটলো তৃণমূল সমর্থকের। বেআইনি জমায়েত সরাতে লাঠিচার্জ বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। প্রশাসনের তরফে কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

দুপুর ১২:৩০: ভোট দিলেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডল। বাইকে বসে তিনি ভোট কেন্দ্রে আসেন। নির্বাচন কমিশনের কড়া নজরদারিতে রয়েছেন তিনি।

দুপুর ১২:২২: মালদহে ইংলিশজবাজার বিধানসভার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের ভোট। এলাকার নাম গোবিন্দপুর। বুথে চলছে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর নজরদারি।

দুপুর ১২:১৩: কেন্দ্রীয় বাহিনী ও নির্বাচন কমিশনের তৎপরতায় শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন হচ্ছে বললেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ও সাংসদ অধীর চৌধুরী।

দুপুর ১২:০১: আজব ঘটনা। ভোট দিতে এসে ভোটের লাইনে দাঁড়িয়েও ভোট দিতে পারলেন না সত্যবালা মন্ডল। বুথ কক্ষে পোলিং আধিকারিকরা স্পষ্ট জানিয়ে দেন তিনি নাকি মৃত। ভোটার তালিকায় তার নাম মৃত বলে ঘোষিত। কিন্তু সত্যবালা মন্ডল সশরীরে হাজির ভোট দিতে। তার দাবি তিনি কবে মারা গেলেন যে ভোটার লিস্টে তার নাম ডিলিটেড বলে ঘোষিত হয়েছে ।শুধুমাত্র প্রশাসনিক ভুলের কারণে সশরীরে বেঁচে থেকেও নিজের গণতান্ত্রিক অধিকারটুকু প্রয়োগ করতে পারলেন না সত্যবালা মন্ডল। গত কয়েক মাস আগে সত্যবালা মন্ডলের বাবা খোকা মন্ডল মারা গেছেন। ভুলবশত বাবার স্থানে তার নাম ডিলিটেড বলে ঘোষিত হয়েছে। ফলে হাজারো আবেদন সত্ত্বেও শেষমেষ ভোট দিতে পারলেন না সত্যবালা দেবী।

সকাল ১১:৪৫: একটি ভোট পরিবর্তন পারে অনেককিছু। নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করে বললেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় ।

সকাল ১১:৪০: মুর্শিদাবাদের ডোমকলের আলিনগরের ২০১ ও ২০৪ নম্বর বুথে তৃণমূল ও সিপিএম কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ। ঘটনাস্থল থেকে লোহার ফলা লাগানো পাঁচটি তির উদ্ধার করে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

সকাল ১১:২০: অষ্টমদফা অর্থাৎ শেষ নির্বাচনে সকাল ১১ টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৩৭.২০ শতাংশ। বীরভূমে ৩৮.০৪ শতাংশ, উত্তর কলকাতায় ২৭.৬৫ শতাংশ, মালদায় ৪১.৬৭ শতাংশ, মুর্শিদাবাদে ৪১.০১ শতাংশ ভোট পড়েছে।

সকাল ১১:০৫: ধুন্ধুমার বেলেঘাটা। রাজবল্লভপাড়ায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ। বাঁশ-লাঠি-হকি স্টিক নিয়ে সংঘর্ষ, ইটবৃষ্টি। পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ বিজেপি কর্মীদের।

সকাল ১১:০০: মালদহের মানিকচক বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত ফুলবেড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বিন পাড়াতে বিজেপি সমর্থকদের বাড়িতে গিয়ে মারধর,মহিলাদের শ্রীলতাহানির অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ভোট দিতে গেলে খুন করে দেওয়া হবে এমন হুমকি দেওয়া হয়েছে। আতঙ্কে গ্রামবাসীরা ভোট দিতে যেতে পারছেন না। নিজেদেরকে গৃহবন্দি করে রেখেছে। ‌বেশিরভাগই বিজেপি সমর্থক বলে দাবি করেন তারা।

সকাল ১০:৫০: মুর্শিদাবাদ জেলার ডোমকল যেন বোমার আখড়া। ঝোপে ঝাড়ে রাখা আছে সকেট বোমা। ডোমকল গত রাত থেকে উত্তপ্ত। সিপিআইএম কর্মীর মৃত্যু হয় গাড়ির ধাক্কায়। সেই গাড়ি টিএমসি প্রার্থীর। তবে তৃণমূল দাবি অস্বীকার করেছে। ডোমকলে সকাল থেকে সিপিআইএম ও টিএমসির মধ্যে চলছে সংঘর্ষ। সংযুক্ত মোর্চার বিরুদ্ধে কয়েকজন টিএমসি কর্মীর বাড়ি ভাঙার অভিযোগ উঠেছে।

সকাল ১০:৪৫: মানিকতলায় ব্যাপক উত্তেজনা। বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবেকে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। কল্যাণ চৌবেকে ঘিরে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান তুলতে থাকে তৃণমূল সমর্থকরা। তৃণমূল পাল্টা অভিযোগ করে বিজেপি প্রার্থী তৃণমূল সমর্থককে ধাক্কা মারে। প্রতিবাদে রাস্তায় বসে পড়লেন বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবে।

সকাল ১০:৩৫: কলকাতা পুলিশের বিরুদ্ধে নজরদারির অভিযোগ তুললেন প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে কাজ করছে পুলিশ অভিযোগ এন্টালির বিজেপি প্রার্থীর।

সকাল ১০:২০: বোলপুর বিধানসভার ইলামবাজারের খয়েরবুনি ও তুলামোড়া গ্রামে ভোটারদের ভোটদানে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

সকাল ১০:১০: মালদার মসিমপুর ১৪২ নম্বর বুথে কংগ্রেসের নাম করে তৃণমূলের এজেন্ট বসানোর অভিযোগ। ভুয়ো এজেন্ট দেওয়ার অভিযোগ তুললেন সুজাপুর বিধানসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী ইশা খান চৌধুরী ।

সকাল ১০:০৫: বীরভূমে বোমাবাজি, হামলা, টিএমসি সিপিআইএম সংঘর্ষে অশান্তির ভোট আবহ জেলা জুড়ে। তারই মাঝে দুবরাজপুরের বিভিন্ন বুথে তুলনামুলক শান্তিতে ভোট চলছে।

সকাল ১০:০৩: আবার উত্তপ্ত মুর্শিদাবাদের ডোমকল। টিএমসির সমর্থকদের উপর সিপিআইএমের হামলার অভিযোগ। গতরাতে টিএমসি প্রার্থীর গাড়ির ধাক্কায় এক বাম সমর্থকের মৃত্যু হয়। দুই কংগ্রেস সমর্থক জখম হন। তারপর থেকে এলাকা উত্তপ্ত।

সকাল ১০:০০: সকাল ৯টা ৩০ পর্যন্ত মোট ভোটদানের হার ১৬.০৪ শতাংশ।

সকাল ৯:৫৭: চৌরঙ্গির মেট্রোপলিটন স্কুলের বুথে ঢোকার সময় তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাঁধা কেন্দ্রীয় বাহিনীর। বচসায় জড়িয়ে পড়েন তৃণমূল প্রার্থী।

সকাল ৯:৫৬: সাঁইথিয়ার পাশোয়া ও মেলানপুরে উত্তেজনা। তৃণমূলের বিরুদ্ধে ভোটারদের বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ বিজেপির ।

সকাল ৯:৪৭: নানুরের বিজেপি প্রার্থী তারকেশ্বর সাহার গাড়ি ভাঙচুর করার অভিযোগ। তার গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছোড়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূল অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

সকাল ৯:৩৫: জোড়াসাঁকো বিধানসভা এলাকায় দফায় দফায় বোমাবাজি। এবার রবীন্দ্র সরণিতে বোমাবাজি। বিজেপি প্রার্থীর গাড়ি লক্ষ্য করে বোমাবাজির অভিযোগ।

সকাল ৯:১৮: কোচবিহারের মাথাভাঙা ব্লকের শীতলকুচির সেই রক্তাক্ত ১২৬ নম্বর বুথ। এখানে গত চতুর্থ দফা ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চার জনের মৃত্যু হয়। বিতর্কিত সেই ঘটনার পর পুনরায় নির্বাচন ঘোষণা করে কমিশন। অষ্টম দফা ভোটে সেই জোড়পাটকি ১২৬ নম্বর বুথে পুন:নির্বাচন চলছে।

সকল ৯:১৫: মহাজাতি সদনের পরে বিধান সরণীতে বোমাবাজি। জোড়াসাঁকো ঠাকুর বাড়ি থেকে কয়েক কিমি দূরে এই ঘটনা ঘটেছে। উত্তেজনা এলাকায়। পুলিশ তল্লাশি শুরু করেছে।

সকাল ৯:০৮: ভোটের দিনে রক্ত ঝরলো ময়ূরেশ্বরে। বেজাগ্রামের ২৪০ নম্বর বুথে বিজেপি-তৃণমৃল সংঘর্ষ। আহত বিজেপি প্রার্থীর ভাই।

সকাল ৯:০২ : শীতলকুচির ১২৬ নম্বর বুথে উত্তেজনা। ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের ১০০ মিটারের মধ্যে বিজেপির পতাকা লাগানো গাড়ি নিয়ে ঘোরার অভিযোগ বিজেপি প্রার্থী বরেন্দ্রচন্দ্র বর্মনের বিরুদ্ধে। পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে আইসি-কে হুঁশিয়ারি তৃণমূল প্রার্থী পার্থপ্রতিম রায়ের।পুলিশের সঙ্গে তৃণমূল প্রার্থীর বচসা।

সকাল ৮:৪২ : রাত থেকে উত্তপ্ত মুর্শিদাবাদের ডোমকল। সিপিআইএম সমর্থকের মৃত্যু। তাকে গাড়ি চাপা দেওয়ায় অভিযুক্ত টিএমসি প্রার্থীর চালক। অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূল কংগ্রেসের। এছাড়া জেলার বাকি ১০টি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে।বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর আসছে।

সকাল ৮:৪০ : নানুরের সিঙ্গি গ্রামে বিজেপি নেতা খোকন দাসের গাড়ি ভাঙচুর। মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যদিও তৃণমূল সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

সকাল ৮:৩৬ : ভোটের অপেক্ষা মালদহে।বিতর্কের কেন্দ্র মানিকচক। ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হতে দেরি হওয়ায় মানিকচক বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত ১৯৩ নম্বর বুথের বাইরে ক্ষোভ প্রকাশ ভোটারদের। কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং প্রিসাইডিং অফিসারদের ধিক্কার ভোটারদের।

সকাল ৮:৩৫ : মালদহের মানিকচক বিধানসভার হরিপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩৯ ও ৩৯A বুথে তৃণমূল এজেন্টকে ঢুকতে বাঁধা। অভিযোগের তির বিজেপির দিকে। মানিকচক বিধানসভার একাধিক বুথে ইভিএম বিকল।

সকাল ৮:২৮ : বীরভূমে চরিত্র বজায় রাখছে নানুর। বেশ কয়েকটি গ্রামে বোমাবাজির অভিযোগ তুলেছে সিপিআইএম।অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। গত বিধানসভা ভোটে নানুর থেকে জয়ী হন সিপিআইএমের শ্যামলী প্রধান। প্রচারের সময় তাঁর সামনে টিএমসি নেতা ‘হাত কেটে নেব’ বলে হুমকি দেয়। বেলা বাড়ার সঙ্গে নানুরে বাড়ছে উত্তেজনা। লাভপুরে বিক্ষিপ্ত অশান্তি।

সকাল ৮:২৩ : মালদহের ইংলিশবাজারে কোভিড বিধি মেনে ভোট গ্রহণ চলছে। রাজ্যে অন্যতম করোনা আক্রান্ত জেলা মালদহ।

সকাল ৮:২০ : ভোটের কলকাতায় সাতসকালে মহাজাতি সদনের সামনে বোমাবাজি। বোমাবাজির জেরে উত্তেজনা ছড়ালো সেন্ট্রাল এভিনিউয়ে। আতঙ্কিত শহরবাসী। রাস্তার উপর দুটি বোমার ছাপ স্পষ্ট। কি উদ্দেশ্যে এই বোমাবাজি তা জানতে সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

সকাল ৮:১৫: কাশিপুর-বেলগাছিয়ায় ব্যাপক উত্তেজনা। ২০৬ নম্বর বুথে অতীন ঘোষকে ঢুকতে বাঁধা। কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ।

সকাল ৮:১০: মানিকতলার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের ৩৬ নম্বর বুথে বিজেপি এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ। তৃণমূলের বিরুদ্ধে বুথের ক্যামেরা ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ তোলেন বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবে।

সকাল ৮:০৫: বেলেঘাটার সিআইটি মোড়ে জমায়েত সরালো পুলিশ। তৃণমূলের বিরুদ্ধে এই বেআইনি জমায়েত করা অভিযোগ ওঠে।জমায়েত সরাতে ব্যাপক বচসা হয়। একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সকাল ৮:০৪: লাভপুরের হাতিয়া গ্রামের ৮১ নম্বর বুথে ব্যাপক উত্তেজনা। একজন সন্দেহভাজনকে আটক করেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। এলাকায় বাড়িতে বোমা লুকিয়ে রাখার খবর পেয়ে তল্লাশি অভিযান চালায় পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী।

সকাল ৭:৫৭: বাংলার শেষ দফার নির্বাচনে বাংলায় ট্যুইট স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের।বাংলায় উন্নয়ন ও সুশাসন নিশ্চিত করতে উৎসাহের সাথে অধিক সংখ্যায় ভোট দেওয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

সকাল ৭:৪৫: মালদার বালুরচরে ভোট দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী।

সকল ৭:৪২: সকাল থেকেই এন্টালির ১৫৭ নম্বর বুথ সহ একাধিক বুথে বিজেপি এজেন্ট বসতে বাঁধা।কমিশনে অভিযোগ জনিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা তিব্রেওয়াল। প্রিসাইডিং অফিসার তৃণমূলের দালালি করছে বলে অভিযোগ বিজেপি প্রার্থীর।এই মুহূর্তে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।

সকাল ৭:৪০: লাভপুরে বিজেপি সমর্থকের বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে। বাড়িতে বোমা রয়েছে বলে অভিযোগ পুলিশের। এমনকি ভোট দিতে বাঁধা দেওয়া হয়েছে। তৃণমূল এব্যাপারে কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি।

সকাল ৭:৩৫: বীরভূম জেলার ১১টি বিধানসভা কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ সুনিশ্চিত করতে ঝাড়খন্ড লাগোয়া খয়রাশোল, রাজনগর, সিউড়ি, মহম্মদবাজার, মুরারইয়ের আন্ত:রাজ্য চেকপোস্টে কড়া নজরদারি চলছে।

সকাল ৭:৩০: মুর্শিদাবাদের হরিহরপাড়ায় প্রবল উত্তেজনা। কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বোমাবাজির অভিযোগ। এলাকায় বেশ কিছু বাড়ি ভাঙচুর। নিজেরা ভেঙেই তৃণমূলের উপর চাপাচ্ছে কংগ্রেস, দাবি তৃণমূলের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে আতঙ্কিত এলাকার মানুষজন। রীতিমতন ভোট দিতে ভয় পাচ্ছেন তারা।

সকাল ৭:২৫: ময়ূরেশ্বর বিধানসভার ২৯০, ২৫৩,২৫৪, দুনোগ্রামে বুথ-২১৯ দোগাছি বুথ-১১৭,১১৮ প্রজাপাড়া বুথ গুলিতে বিজেপি এজেন্টদের বসতে দিচ্ছে না তৃণমূল। অভিযোগ বিজেপির।

সকাল ৭:২৪: কাশিপুর-বেলগাছিয়া ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করলেন মিঠুন চক্রবর্তী। রাজ্যবাসীকে ভোট দেওয়ার অনুরোধ জানালেন।

সকাল ৭:২০: অষ্টম অর্থাৎ শেষদফার নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গবাসীকে করোনা প্রটোকল মেনে ভোট দেওয়ার আবেদন জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

সকাল ৭:১৫: মালদার মানিকচক শিক্ষায়তন হাই স্কুলে এখনও পর্যন্ত ভোট শুরু হয়নি। ইভিএম বিকলের অভিযোগ। সকাল থেকে লম্বা লাইন দেখা গিয়েছে। অপরদিকে মালদার সুজাপুরে করোনাবিধি মানার কোনো চিহ্ন নেই।

সকাল ৭:১২: কলকাতার শ্যামপুরের ৩২ নম্বর বুথে বিজেপি এজেন্টকে বসতে বাঁধা। অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তৃণমূল জনিয়েছে করোনাবিধি মানতে এমন হয়েছে। নির্বাচন কমিশন বিষয়টা তদারকি করছে।

সকল ৭:০৫: বীরভূমের মুরারই, নলহাটি, রামপুরহাট, হাসন ও ময়ূরেশ্বর বিধানসভার একাধিক বুথ ঘিরে গরম হচ্ছে পরিস্থিতি। ঝাড়খণ্ড সীমানায় কড়া পাহাড়া। বীরভূম ও মুর্শিদাবাদ জেলার আন্ত:সীমানায় বিশেষ নজরদারি।

সকাল ৬:৫০: মুর্শিদাবাদের ডোমকলে ভোট শুরু হতেই প্রবল উত্তেজনা। সিপিআইএম কর্মীর মৃত্যু। সংযুক্ত মোর্চার সিপিআইএম ও কংগ্রেসের তিনজন জখম। অভিযোগ, টিএমসি প্রার্থী জাফিকুল ইসলামের সমর্থকদের গাড়ির ধাক্কায় এই মর্মান্তিক ঘটনা। ডোমকল দীর্ঘসময় ধরে বামেদের দখলে। মৃতের নাম কাদের আলি মণ্ডল।

সকাল ৬:৪৫: মালদার সুজাপুরে তৃণমূলের সমর্থকের উপর লাঠিচার্জের অভিযোগ। পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ।জমায়েত সরাতে এই লাঠিচার্জ।প্রশাসনের তরফ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

সকাল ৬:৩৫: রক্তাক্ত শীতলকুচির সেই ১২৬ নম্বর বুথে পুনঃনির্বাচন। কোচবিহার জেলার এই বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চার জনের মৃত্যু হয়েছিল। ঘটনার জেরে প্রবল বিতর্ক হয়। শেষ দফায় এই বুথে পুনরায় নির্বাচন হচ্ছে। এলাকা পরিদর্শনে কোচবিহারের পুলিশ সুপার দেবাশিস ধর। চলছে পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর টহল।শেষ তথা অষ্টম দফা ভোটে শীতলকুচির দিকে বিশেষ নজর নির্বাচন কমিশনের। সেখানে থমথমে পরিবেশ।

সকাল ৬:৩২: শেষ দফার নির্বাচনে বীরভূম জেলা ঘিরে সরগরম পরিস্থিতি। নানুর ও লাভপুর থেকে পরপর তাজা বোমা উদ্ধার হয়েছে গতকাল। ভোটে সংঘর্ষের আশঙ্কা। এছাড়া জেলার বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষিপ্ত অশান্তি এড়াতে সর্বাধিক কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

করোনার সংক্রমণ-বৃদ্ধির মধ্যেই রাজ্যে আজ অষ্টম অর্থাৎ শেষ দফার নির্বাচন। চার জেলার ৩৫ আসনে ভোটগ্রহণ।মালদা জেলার ৬টি আসন, মুর্শিদাবাদের ১১,কলকাতার ৭ এবং বীরভূমের ১১টি আসনে আজ ভোটগ্রহণ।আজ কলকাতার চৌরঙ্গি, এন্টালি, বেলেঘাটা, জোড়াসাঁকো, শ্যামপুকুর, মানিকতলা, কাশীপুর-বেলগাছিয়া কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, কলকাতায় ভোটে মোতায়েন থাকছে ৯৫ কোম্পানি বাহিনী। বীরভূমে থাকছে ২২৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। মালদায় থাকছে ১১০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। মুর্শিদাবাদে থাকছে ২১২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.