নয়াদিল্লি: অনুশীলন শুরু করার অনুমতি চেয়ে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরণ রিজিজুর কাছে আবেদন জানালেন মিরাবাই চানু সহ দেশের অন্যান্য ভারোত্তলকরা। ভারোত্তলকদের দাবি যত শীঘ্র সম্ভব অনুশীলনের অনুমতি দিক ক্রীড়ামন্ত্রক। প্র্যাকটিসের জন্য বরাদ্দ হল রুমে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংয়ের কোনওরকম সমস্যা হবে না বলে জানিয়েছেন তারা।

করোনাভাইরাসের ব্যাপক প্রকোপের জেরে মার্চের মাঝামাঝি সময় থেকে বন্ধ স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া। সেই থেকে পাতিয়ালার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ স্পোর্টসে রয়েছেন ভারোত্তলকরা। সম্প্রতি পাতিয়ালায় আটকে থাকা ভারোত্তলকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী। অনুশীলন পুনরায় চালু করা নিয়ে তাঁদের মতামত জানতে চান তিনি।

সেখানেই ক্রীড়ামন্ত্রীর কাছে অনুশীলন শুরু করার আবেদন করেন প্রাক্তন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন মীরাবাই চানু সহ অন্যান্য ভারোত্তলকরা। পিটিআই’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে চানু বলেছেন, ‘আমরা প্রত্যেকেই তাঁর কাছে আবেদন জানিয়েছি যত শীঘ্র সম্ভব আমাদের ট্রেনিং সেশন যাতে পুনরায় চালু করা সম্ভব হয়।’ আমরা বর্তমানে কেবল ওয়েট ট্রেনিংয়ের দিকে নজর রেখেছি নিজেরা। যেটা ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ।’

চানুর সুরেই সুর মিলিয়ে জাতীয় কোচ বিজয় শর্মা জানিয়েছেন, ‘ট্রেনিং হলে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং বজায় রেখেই অনুশীলন করা হবে। প্রায় দু’মাস হতে চলল ট্রেনিং বন্ধ। ক্যাম্পাস বন্ধ রয়েছে। কেউ বাইরে যাচ্ছে না। ভিতরেও কেউ প্রবেশ করছে না। তাই আমরা অনুশীলন শুরু করতেই পারি।’ একইসঙ্গে তাঁর সংযোজন, ‘ট্রেনিংয়ের জন্য বরাদ্দ আমাদের হল ঘর যথেষ্ট বড়। ৫ মিটারের দূরত্ব বজায় রাখতে কোনওরকম সমস্যা হওয়ার কথা নয়। আমাদের জন্য ১৬টি প্ল্যাটফর্ম বরাদ্দ রয়েছে, ভারোত্তলক রয়েছেন ৯ জন। সুতরাং সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং সহজেই বজায় রাখা যাবে।’

মীরাবাই চানু ছাড়াও পাতিয়ালার ট্রেনিং ক্যাম্পে রয়েছেন যুব অলিম্পিকে সোনাজয়ী জার্মি লালরিনুঙ্গা, দু’বারের কমনওয়েলথ গেমস চ্যাম্পিয়ন সতীশ শিবলিঙ্গম। উল্লেখ্য, রবিবার ভারোত্তলকদের অনুশীলনে ফেরার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ছয় সদস্যের কমিটি গঠন করেছে স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া। ভারোত্তলক ছাড়াও ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড অ্যাথলিট এবং পুরুষ ও মহিলা হকি দলের অনুশীলনে ফেরার বিষয়টিও ভেবে দেখছে ক্রীড়ামন্ত্রক।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ