বেশিরভাগ লোকজন ওজন কমানোর জন্য ডায়েটকেই বেছে নেন। দিনের শুরুতে আপনি কী খাচ্ছেন তার ওপরেও এটা অনেকটা নির্ভর করে। খালি পেটে কিছু খাবার খেলে অ্যাসিডিটি এবং জ্বালা হতে পারে। একই সঙ্গে এমন কিছু খাবার রয়েছে যা আপনার ওজন কমানোর স্বপ্ন ভেঙে দিতে পারে।

আসুন জেনে নেওয়া যাক কী সেই জিনিস যা কখনই খালি পেটে খাওয়া উচিত নয়-

টক ফল: কখনও কখনও খালি পেটে টক ফল খাবেন না। এর ফলে শরীরে প্রচুর অ্যাসিড তৈরি হয়। খালি পেটে এগুলি খেলে পেটে অতিরিক্ত ওজন জমতে শুরু করতে পারে। পরিবর্তে, দিনটি কিসমিস বা ভেজানো বাদাম খাওয়ার মাধ্যমে শুরু করা উচিত।

সফট ড্রিঙ্ক: সোডা বা কোনও সফট ড্রিঙ্কস খালি পেটে পান করা উচিত নয়। যদিও এই পানীয়গুলি কখনই স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো না, তবে খালি পেটে এগুলি পান করলে আরও ক্ষতি হয়।খালি পেটে এগুলি পান করার ফলে গ্যাস এবং বমি বমি ভাব দেখা দেয়। পাশাপাশি স্থূলতা বাড়ে। পরিবর্তে খালি পেটে লেবু পান করুন এটি ওজন হ্রাসেও সহায়ক।

মশলাদার খাবার- সকাল থেকে খালি পেট থাকার পরে, প্রাতঃরাশের পর মশলাদার খাবার খেলে আপনার পেট জ্বালা হতে পারে। মশলাদার খাবার খেয়ে পেটে অম্বলও হতে পারে। প্রাতঃরাশ সবসময় হালকা এবং সহজ হওয়া উচিত।

কোল্ড ড্রিঙ্কস: কোনোভাবেই দিন কোল্ড ড্রিঙ্ক দিয়ে শুরু করা উচিত নয়। কোল্ড কফি বা আইস টি পান করা আপনার হজম ক্ষমতাকে কমিয়ে দিতে পারে। পরিবর্তে হালকা গরম জল, লেবু বা আদা চা নিন। এই তিনটি জিনিস ওজন কমানোর পাশাপাশি হজম শক্তি বাড়িয়ে তোলে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।