স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সকাল থেকেই ক্রমে চড়ছে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা। পশ্চিমী ঝঞ্ঝায় উধাও শীত। তাপমাত্রা বাড়বে বই কমবে না বলেই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস। বাড়বে অস্বস্তি।

গত দিন দুয়েক ধরেই বাড়ছে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলার তাপমাত্রা। শনিবার কলকাতার তাপমাত্রা ১৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৯.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৯৮ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৩৭ শতাংশ। শনিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশী। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি বেশী।

দক্ষিণবঙ্গের বেশীরভাগ অঞ্চলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা প্রায় একইরকম রয়েছে। রবিবার বাঁকুড়ার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ক্যানিংয়ে ১৪.৪ ডায়মন্ড হারবারে ১৪.৫, দমদমে ১৬.৬, সল্টলেকে ১৭.১ ও শ্রীনিকেতনে ১৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছুঁয়েছে পারদ। সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও দক্ষিণবঙ্গের বেশীরভাগ অঞ্চলেই ৩০ ছুঁই ছুঁই।

আবহাওয়াবিদ সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন , ‘উত্তরবঙ্গে রবিবার পর্যন্ত বৃষ্টি চলবে। বৃষ্টি হবে উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে।’ এই সমস্ত অঞ্চলে ভারী থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস মিলেছে। এই সময়ে অর্থাৎ রবিবার দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I