আপাতত শীতের বিরতি

নয়াদিল্লি : বুধবার পর্যন্ত তাপমাত্রা বাড়ছিল প্রতিবেশী বিহার, ঝাড়খণ্ড, ওডিশায়। এবার তাপমাত্রার নামার ইঙ্গিত দিল হাওয়া অফিস। মূলত বিহারে তাপমাত্রা ২ থেকে চার ডিগ্রি নামতে পারে বলে পূর্বাভাস। আজ বুধবার বিহার, ওডিশা কোনও কোনও স্থানে কুয়াশা থাকবে। ঘনত্ব হতে পারে ২০০-৯৯৯ মিটার। আগামী দিন পাঁচেক এই অঞ্চলে রাতের তাপমাত্রায় কোনও পরিবর্তন হবে না বলেও খবর মিলছে হাওয়া অফিস সূত্রে। এদিকে আজ আন্দামান নিকবোরে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানাচ্ছে মৌসম ভবন।

বৃহস্পতিবার জামশেদপুরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, রাঁচির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ডাল্টনগঞ্জের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ভাগলপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, গয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পাটনায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পূর্নিয়ার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধবার জামশেদপুরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, রাঁচির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ডাল্টনগঞ্জের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ভাগলপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, গয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পাটনায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পূর্নিয়ার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, এখানে আবার ০.৪ মিলিমিটার বৃষ্টিও হয়েছে।

বাংলার দক্ষিণাংশে লাফিয়ে সমস্ত জেলার তাপমাত্রা গড়ে তিন ডিগ্রি বেড়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে গায়ের লেপ কম্বল, জ্যাকেট ছেড়ে গায়ে রাখতে হচ্ছে কোনওরকমে হালকা চাদর। এক দিনের ফারাকে দক্ষিণের প্রত্যেক জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫-র উপরে চলে যাওয়ায় এমনই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে

বৃহস্পতিবার আসানসোলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বাঁকুড়ায় ১৭.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ব্যারাকপুরে ১৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বর্ধমানে ১৫.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ক্যানিংয়ে ১৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, কাঁথি ১৬.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, দিঘায় ১৮.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, কলাইকুন্ডায় ১৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, মেদিনীপুর ১৮.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পুরুলিয়া ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পানাগড়ে ১৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শ্রীনিকেতনে ১৬.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বুধবার আসানসোলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বাঁকুড়ায় ১৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ব্যারাকপুরে ১২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বর্ধমানে ১৫.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ক্যানিংয়ে ১৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, কাঁথি ১১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, দিঘায় ১৫.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পানাগড়ে ১১.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শ্রীনিকেতনে ১২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, কলাইকুন্ডায় ১২.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পুরুলিয়া ১১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, মেদিনীপুর ১৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অর্থাৎ ২৪ ঘণ্টায় যে ব্যাপক হারে পারদ চড়েছে সমস্ত জেলায় তা স্পষ্ট।

উত্তরভারতের ক্ষেত্রে বৃহস্পতিবার শ্রীনগর, দিল্লি ও লখনউয়ের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা যথাক্রমে মাইনাস ০.৮ , ১৪.৪, ১৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজকোটে ৯.৪ ও আহমেদাবাদে ১৩.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। বুধবার শ্রীনগর, দিল্লি ও লখনউয়ের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে মাইনাস ০.৯ , ১৩.০, ১২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজকোটে ১০.৮ ও আহমেদাবাদে ১১.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।