স্টাফ রিপোর্টার , কলকাতা : লাফিয়ে ৬ ডিগ্রি বেড়েছে কলকাতার তাপমাত্রা। এমনটাই দেখা যাচ্ছে হাওয়া অফিসের রেকর্ডে। আজ বুধবার যে পারদ ঊর্ধ্বমুখী হতে পারে তা আগেই জানিয়েছিল হাওয়া অফিস। কিন্তু তা এতটা যে বৃদ্ধি পাবে তা বোঝা যায়নি কিন্তু সেটাই হয়েছে। যা ছিল ১৩ আজ তা ১৯ ডিগ্রি হয়েছে।

মঙ্গলবারের তুলনায় কলকাতার তাপমাত্রা বেড়েছে সাড়ে ছয় ডিগ্রির কাছাকাছি মঙ্গলবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ বুধবার সকালে তা হয়েছে, ১৯.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ৫ ডিগ্রি বেশি। কুয়াশাছন্ন শহর থেকে শীত এক্কেবারে নেই বললেই চলে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ মঙ্গলবার ছিল ২৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আর্দ্রতার পরিমান স্বাভাবিক ভাবেই বেড়ে হয়েছে সর্বোচ্চ ৯৯ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৫৮ শতাংশ। দমদমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৭.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সল্টলেকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৮.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস

এর কারণ কী? মূলত কুয়াশা। তবে হাওয়া আলিপুর আবহাওয়া দফতরের ব্যখ্যা জানাচ্ছে , একটি বঙ্গোপসাগরে একটি বিপরীতমুখী ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে তাঁর জেরে শহরে প্রচুর পরিমানে দক্ষিনী হাওয়ার প্রবেশ করেছে। যা কুয়াশা বাড়িয়েছে, বৃদ্ধি করেছে কলকাতার তাপমাত্রা। আগামী ২৪ ঘণ্টায় তা ফের নেমে ১৭তে নামতে পারে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।

গত রবিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। শনিবার বিকালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৩.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯১ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৫৩ শতাংশ। শনিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। শুক্রবার বিকালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল শুক্রবার বিকালে ২৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৮৮ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৪৮ শতাংশ।

শুক্রবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল বৃহস্পতিবার বিকালে ২৪.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৮৩ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৫১ শতাংশ। বৃহস্পতিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল বুধবার বিকালে ২৪.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল মঙ্গলবার বিকালে ২৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সোমবার বিকালে ২৮.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৫ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৫৮ শতাংশ। সোমবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২০.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস্ম যা স্বাভাবিকের থেকে সাত ডিগ্রি বেশি। রবিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৯.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ছয় ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা শনিবার বিকালে বেড়ে ২৯.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি বেশি। আজ আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৯ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৪৯ শতাংশ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.