স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : এক দিকে ভোটের উত্তাপ অপরদিকে পাল্লা দিয়ে চড়ল শহরে পারদ। দিনভর হাঁসফাঁস অবস্থা হল কলকাতার। দিনের শেষে হাওয়া অফিস জানাচ্ছে সোমবার শহরের উষ্ণতম দিন। এদিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রী বেশি।

এক লাফে ৬ ডিগ্রি পেয়েছে শহরের তাপমাত্রা। রবিবার পর্যন্ত ভালো ছিল শহরের আবহাওয়া। সোমবার যা ফের অস্বস্তিকর হতে শুরু করে সাত সকালেই। হাওয়া অফিসের পারদ মাপক যন্ত্র সেই তথ্যই দেয় সকাল বেলা। আকাশ পরিস্কার হতেই বেড়ে গিয়েছে তাপমাত্রা। বৃদ্ধি পেয়েছিল সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

সোমবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.৭ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক । পরে তা বেড়ে ৩৭.৯ গিয়ে ঠেকে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। আর্দ্রতা সর্বোচ্চ ৯২ সর্বনিম্ন ৫৪ শতাংশ। আগামী ২৪ ঘন্টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা আরও বাড়বে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

রবিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৯.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ছয় ডিগ্রি কম । সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম।শনিবার দুপুর থেকে দুর্যোগ এগিয়েছে বাংলাদেশের দিকে। সেখানে ফণী শুধুই নিম্নচাপ রূপে গিয়েছে। সেই নিম্নচাপের জেরে রবিবারের কলকাতার আকাশ আংশিক মেঘলা রয়েছে। দুপুরের পর থেকে কেটেছে মেঘ। তখন থেকেই পারদ চড়েছে। সোমবার যা ছয় ডিগ্রী বেড়ে গিয়েছে।

শনিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি কম । সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৩.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম।

শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম । সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশি। বৃহস্পতিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রী বেশি। ইতিমধ্যেই ঝড় ওড়িশার ও পশ্চিমবঙ্গের দিকে বাঁক নিয়েছে।

বুধবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিক। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশী। মঙ্গলবারের তাপমাত্রা প্রায় একইরকম ছিল। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশী। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশী। সেটাই ফনীর জেরে কমতে কমতে শেষে রাত থেকে ঝেঁপে ৬৬.২ মিলিমিটারের বৃষ্টিতে পাঁচ ডিগ্রি হুরমুরিয়ে নেমে গিয়েছিল।