সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় , কলকাতা : আগামী তিন দিন জমিয়ে শীতের পূর্বাভাস দিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর । কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের অন্যন্য জেলাতে অনুভূত হবে শীত। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। রাতের তাপমাত্রা আগামী তিন দিনে স্বভাবিকের চেয়ে দুই থেকে চার ডিগ্রি কম থাকবে।

কলকাতার তাপমাত্রার দিকে তাকালেই মিলবে সেই পূর্বাভাস। স্বাভাবিকের অনেক নীচে নেমে গিয়েছে শহরের তাপমাত্রা। শুক্রবার সকাল থেকেই মেঘলা ছিল কলকাতার আকাশ। পাশাপাশি ছিটেফোঁটা বৃষ্টিও হয়েছিল রাতের দিকে। পুবালি হাওয়ার প্রভাব ছিল। শনিবার রাত থেকে মেঘের চাদর সরেছে এবং রবিবারেই ফের স্বাভাবিকের নীচে নামে কলকাতার পারদ। সোমবারও সেই রেশ বজায় থাকল।

সোমবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ফের ফিরেছে ১৩র ঘরে। এদিনে সকাল ৬টার সময় মহানগরের তাপমাত্রা ছিল ১৩.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে চার ডিগ্রি কম।রবিবার তাপমাত্রা ১৯.২ থেকে নামে ১৬.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, যা স্বাভাবিকের চেয়ে এক ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা নেমেছে ৩০ থেকে ২৬.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, যা স্বাভাবিকের চেয়ে তিন ডিগ্রি কম। ঝঞ্ঝার জেরে কলকাতার পারদ ক্রমশ চড়েছিল। শীতের বেলা যেমন ফুরিয়েছে তেমনই ভাবেই বেড়েছিল পারদ। পশ্চিমি ঝঞ্ঝা এই পারদ চড়াকে আরও ইন্ধন জুগিয়েছিল। বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৮.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে এক ডিগ্রি বেশি। শুক্রবার তাপমাত্রা আরও কিছুটা বেড়েছে। বেশি বেড়েছে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। এদিন কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৭.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে এক ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে তিন ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৪ শতাংশ সর্বনিম্ন ৩৯ শতাংশ। শনিবার তাপমাত্রা ছিল সর্বনিম্ন ১৯.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে এক তিন বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও পৌঁছে গিয়েছিল ৩০.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে , যা স্বাভাবিকের চেয়ে তিন ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৩ শতাংশ সর্বনিম্ন ৩৭ শতাংশ। বৃষ্টিও হয়েছিল ০.০৩ মিলিমিটার। শনিবার রাত থেকে মেঘ সরেছে। পারদও নেমেছে।

এবার যদি কলকাতা ছেড়ে দক্ষিণবঙ্গের অন্যন্য জেলার দিকে তাকানো যায় তাহলে দেখা যাচ্ছে ফের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে গড়ে ১২ থেকে ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। সোমবার দিঘা, ডায়মন্ড হারবারের মতো সামুদ্রিক অঞ্চলে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৩ এবং ১৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। হলদিয়ার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কৃষ্ণনগর এবং মেদিনীপুরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ১৫.০ এবং ১২.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিন পানাগড়ের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমেছে ৯.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, শ্রীনিকেতনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে ১০.০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, উলুবেড়িয়ার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আবারও নেমেছে ১১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। রাতের দিকে ঠাণ্ডা এই সমস্ত অঞ্চলেই বাড়বে অর্থাৎ ব্যাপক শীত অনুভূত হবে আগামী তিন দিন।

সোমবার উত্তরবঙ্গের মালদহের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সোমবার দার্জিলিংয়ের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পাশাপাশি কালিম্পঙ, জলপাইগুড়ি, শিলিগুড়িতে সোমবারের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ১০.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং ৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।