কলকাতা : মেঘ সরতেই সকালে একদম ঠাণ্ডা হাওয়া। আর এতেই সকাল থেকেই যে অস্বস্তিকর গরম গত কয়েকদিন ধরে অনুভূত হচ্ছিল তা কিছুটা কমেছে। কিন্তু এতে বিশেষ সুরাহা হয়নি। তাপমাত্রা স্বাভাবিকের বেশ কিছুটা উপরে রয়েছে সময়ের স্বাভাবিকতা বজায় রেখে। তবে কতটা বাড়ছে সেটার উপরেই নির্ভর করে তাপমাত্রার স্বাভাবিক, অস্বাভাবিক মাত্রা। তবে বেলার দিকে গরম ফের বাড়বে। আবহাওয়াকে অস্বস্তিকর করবে বেলার অতিরিক্ত আর্দ্রতার পরিমান।

বুধবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২২.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। মঙ্গলবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। সঙ্গে সকাল থেকেই আজ পরিস্কার আকাশ। রৌদ্রজ্জ্বল আকাশে বাড়বে গরমের দাপট। সঙ্গী হবে বিশ্রী ঘামও। কারণ, আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৩ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৩৬ শতাংশ।

মঙ্গলবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৩.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি বেশি। সোমবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি বেশি। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৫ শতাংশ, সর্বনিম্ন ২৪ শতাংশ। রবিবারে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে থেকেই এমন হাঁসফাঁস অবস্থার মুখোমুখি হয়েছে রাজ্যবাসীকে। সকাল থেকে চড়া রোদের সঙ্গে ঘামে অস্বস্তি বেড়েছে শহরবাসীর। আর্দ্রতা রয়েছে প্রায় ৯৫ শতাংশ। সুতরাং প্রচণ্ড ঘাম ও অস্বস্তি অনুভূত হচ্ছে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, মেঘলা আকাশ থাকলেও দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। ফলে প্যাচপ্যাচে গরমের সম্মুখীন হতে হবে। তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গরম আরও বাড়তে পারে। সূর্যের তাপে নাজেহাল হবে বঙ্গবাসী। উত্তরবঙ্গে অবশ্য এখনও রয়েছে শীতের আমেজ। সেখানে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। কুয়াশার ঘনঘটা কখনও কখনও দেখা যাবে। যদিও আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, বৃষ্টি হতে পারে— দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে। এই সপ্তাহে তাপমাত্রা আরও বাড়বে। স্বাভাবিকের চেয়ে ২ থেকে ৪ ডিগ্রি বেশিই থাকবে বলে জানানো হয়েছে। পরবর্তী ক্ষেত্রে কলকাতা–সহ দক্ষিণবঙ্গে সর্বোচ্চ ৩৪ ডিগ্রি এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২২ ডিগ্রি। সুতরাং গরমে নাজেহাল হতে হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি বেশী। গত সপ্তাহে শনিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। শুক্রবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২১.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.৫ ডিগ্রি। এটাও স্পষ্ট যে কতটা বেড়েছে সকালের তাপমাত্রা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।