লন্ডন: গোটা বিশ্ব এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাস নিয়ে উদ্বিগ্ন। আর এই ভাইরাসের প্রতিষেধক নিয়ে এই মুহূর্তে চেষ্টা করে চলেছে একাধিক প্রথম সারির দেশ। ইতিমধ্যেই যদিও রাশিয়ার তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে প্রতিষেধকের ব্যাপারে। তারপরেও একাধিক দেশ এই নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন। তবে তার মধ্যে এবারে আরও এক নয়া তথ্য সামনে আনলেন বেশ কিছু গবেষক।

বিশেষজ্ঞদের তরফে জানানো হয়েছে যৌন মিলনের সময়ে ফেস মাস্ক ব্যবহার এবং একই সঙ্গে চুম্বন এড়ানো গেলে অনেকটাই করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি কমবে। এমনটা জানিয়েছেন এক দল গবেষক। যেহেতু এই মুহূর্তে করোনা সংক্রমণের হার ক্রমেই বাড়ছে সেই কারণেই গবেষকদের তরফে জানানো হয়েছে এই তথ্য। লন্ডনের বেশ কিছু গবেষক পরীক্ষার পরে এই সিদ্ধান্তে এসেছেন।

দীর্ঘ লকডাউন এবং তার সঙ্গে ধীরে ধীরে নিয়ম শিথিল করার কারণে এই মুহূর্তে ক্রমেই বেড়েছে এই যৌন মিলনের হার আর সেই কারণেই দীর্ঘ পরীক্ষার পরে এই সিদ্ধান্তে এসেছেন গবেষকরা।

তাদের তরফে আরও জানানো হয়েছে এই জটিল সময়ে যৌন মিলনের সেরা সঙ্গী নিজে অথবা যার সঙ্গে রয়েছেন সেই মানুষ। অন্য কারোর সঙ্গে এই মুহূর্তে যৌন মিলনে যে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে তা কার্যত স্পষ্ট করে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। হস্তমৈথুন, অথবা সেক্স অথবা ফোন বা অনলাইন সেক্স এই মুহূর্তে সব থেকে নিরাপদ উপায় বলে জানিয়েছেন তারা।

যেহেতু সেক্ষেত্রে নির্দিষ্ট দুরত্ব মানা সম্ভব হয় সেই কারণে এগুলির উপরে জোর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। পাশপাশি করোনা সংক্রান্ত উপসর্গের দিকেও যাতে সকলে নজর রাখেন সেই বিষয়েও জানানো হয়েছে।

পাশপাশি বিশেষজ্ঞদের তরফে জানানো হয়েছে যদি করোনা সংক্রান্ত উপসর্গ দেখা যায় কারো মধ্যে সেক্ষেত্রে যৌন মিলন থেকে দূরে থাকা বাঞ্ছনীয়। এছাড়া এও জানানো হয়েছে মিলনের আগে এবং পরে ২০ মিনিট ধরে হাত ধোয়াও যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া মিলনের সময়ে ফেস মাস্ক ব্যবহারের উপরেও জোর দিয়েছেন তারা।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।