মুম্বই: সোশ্যাল মিডিয়ায় এখনও ট্রেন্ডিংয়ের শীর্ষে ঘটনাটি। কেরলের মালাপ্পুরমে গর্ভবতী হাতিকে বিস্ফোরক ভর্তি আনারস খাইয়ে নারকীয় হত্যার ঘটনায় মন ভার রাষ্ট্রের। একইসঙ্গে বর্বরোচিত এমন কাজা যারা করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশের মানুষ। কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন জানিয়েছেন ঘটনায় জড়িত প্রত্যেকের যথোপযুক্ত কঠোর শাস্তি হবে।

সাধারণ মানুষের পাশাপাশি হাতি এবং তাঁর গর্ভের সন্তানকে হত্যার ঘটনায় সুর চড়িয়েছেন রুপোলি পর্দা থেকে শুরু করে খেলার মাঠের সেলেবরাও। গতকালই প্রাণী হত্যার মতো কাপুরুষোচিত কাজ অবিলম্বে বন্ধের দাবিতে সরব হয়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন ফুটবল অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীও। হাতি হত্যার ঘটনায় এবার নিজেদেরই অসভ্য-বর্বর বলে দাবি করলেন রোহিত শর্মা।

বৃহস্পতিবার সকালে এক টুইটবার্তায় জাতীয় দলে কোহলির ডেপুটি লেখেন, ‘আমরা হলাম অসভ্যের দল। আমরা কী কিছুই শিখছি না? কেরলে হাতিটার সঙ্গে যেটা হয়েছে সেটা অত্যন্ত হৃদয় বিদারক। মানুষের থেকে হিংস্রতা পশু-পাখিদের প্রাপ্য নয়।’ টুইটারে কোহলি সন্তানসম্ভবা হাতিটির একটি প্রতীকী ছবি গতকাল পোস্ট করে লেখেন, ‘কেরলের যা ঘটেছে সেটা শুনে হতবাক আমি। হৃদয় দিয়ে দেশের পশু-পাখিদের পালন করা হোক। অবিলম্বে বন্ধ হোক এমন কাপুরুষোচিত কাজ।’

জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীও নিন্দায় সরব হয়েছেন মালাপ্পুরমের ঘটনায়। টুইটারে ছেত্রী লিখেছেন, ‘একটা গর্ভবতী হাতি। ওর ক্ষতি করার প্রবৃত্তি মোটেই ছিল না। কিন্তু মানুষ ওর সঙ্গে যেটা করল সেটা দানবীয় একটা কাজ। এর ফল ওদের ভুগতেই হবে। প্রকৃতিকে রক্ষা করতে আমরা বারংবার ব্যর্থ। তাহলে কীভাবে আমরা সবচেয়ে বিবর্তিত প্রজাতি হিসেবে নিজেদের দাবি করতে পারি?’

বুধবার সকালেই এমন ঘটনায় দোষীদের কঠোরতম শাস্তির দাবি জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্ট লেডি অনুষ্কা শর্মা। বলিউড অভিনেত্রী লেখেন, ‘এক্ষেত্রে বর্বরতা সীমা ছাড়িয়েছে। যখন তোমার মধ্যে সহানুভূতি কিংবা মমতার মতো বিষয় থাকে না তখন তুমি নিজেকে মানুষ বলে দাবি করতে পারো না। কাউকে আঘাত করা হত্যা করা মানবতার ধর্ম হতে পারে না।’

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV