দেবময় ঘোষ, কলকাতা : বিজেপির রাজ্য সভাপতি দীলিপ ঘোষের ধারণা প্রাক্তণ পুলিশ কর্তা ভারতী ঘোষের সঙ্গে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কথা হয়েছে ৷ তবে তা শুধুই ধারণা ৷ দীলিপবাবু তাঁর ধারণার সপক্ষে তথ্য প্রমাণ দিতে চাননি ৷ সোমবার সাংবাদিক সম্মেলনে দীলিপবাবু জানান, ভারতী ঘোষের জন্য দলের দরজা খোলা ৷ তিনি কলকাতায় ফিরে বিজেপি’তে যোগ দেওয়ার জন্য আবেদন করলে, দল তা বিবেচনা করবে ৷

প্রসঙ্গত, দীলিপবাবুর সঙ্গে ভারতী দেবীর এর আগে খুব বেশি দেখা হয়নি ৷ নিজের স্মৃতি থেকে দীলিপবাবু বলছেন, একবার আমি গাড়িতে বসেছিলাম ৷ আর আমাকে গাড়ি থেকে নামতে দিতে চাননি উনি ৷ তাই আমার গাড়ির পিছনে ছুটেছিলেন ৷ আমি ওঁকে দৌড় করিয়েছিলাম ৷

দীলিপবাবুর বক্তব্য, শাসকদল ওঁকে নিজেদের প্রয়োজনে ব্যবহার করেছিল ৷ এখন প্রয়োজন ফুরিয়েছে, তাই এই সব হচ্ছে ৷ দীলিপবাবু জানান, ভারতী নিজেই মুখ্যমন্ত্রীকে ‘জঙ্গলমহলের মা’ বানিয়েছিলেন ৷ এখন কাজ ফুরিয়ে গিয়েছে ৷ তাই তাঁর সঙ্গে অমানবিক ব্যবহার ৷ তৃণমূল ভয় পাচ্ছে, গোপন কথা ফাঁসিয়ে দেবেন ভারতী ৷

পঞ্চায়েত ভোটের পরিপ্রাক্ষিতে দীলিপবাবু বক্তব্য, প্রার্থীদের হুমকির মুখে মনোনয়নে জমা দিতে হয় ৷ রাজ্য বিজেপি সভাপতি জানিয়েছেন, প্রার্থীরা জেলা শাসকের দপ্তরে গিয়ে মনোনয়ন জমা দিক ৷ নয়তো রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দপ্তরে বা অনলাইন মনোনয়নে জমা দেওয়ার ব্যবস্থা চালু হোক ৷

মুখ্যমন্ত্রী মায়াপুরে মন্দির দর্শন করতে গিয়েছেন ৷ বিষয়টি নিয়ে বেশ খুশি রাজ্য বিজেপি ৷ দীলিপবাবু জানান, বেশ কয়েক বছর ধরেই দেখছি ‘সেকুলার’ নেতা-নেত্রীরা মন্দির যাচ্ছেন ৷ এতে পূণ্যার্জন হবে ৷ ভোট লাভ হবে না ৷ সাংবাদিকদের প্রশ্ন, নরেন্দ্র মোদী ওমানে একটি মসজিদ দর্শন করেছেন ৷ দীলিপ বলছেন, এটা দেশের নেতা হিসেবে মোদীজির জয় ৷ মসজিদে অ-মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষদের ঢোকার নির্দেশ নেই ৷ মোদীজি তা দেশের নেতা হিসেবে ঢুকেছেন ৷