স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সম্প্রতি মহারাষ্ট্র মডেলকে সামনে রেখে পশ্চিমবঙ্গেও কিষাণ লং মার্চের আয়োজন করেছিল বামেরা৷ আর তাতে কিছুটা হলেও ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখেছে তরুণ বাম ব্রিগেড৷ রাজ্যে এই তরুণ বাম ব্রিগেডের অন্যতম পরিচিত মুখ হলেন শতরূপ ঘোষ৷ সোশ্যাল মিডিয়াতে অত্যন্ত জনপ্রিয় একই সঙ্গে বিতর্কিত শতরূপ মাঝে মাঝেই রসিকতার ছলে রাজ্যের শাসক দলের সমালোচনা করে থাকেন৷

কয়েকদিন আগে নিজের ফেসবুক ওয়ালে ‘‘গোয়িং টু ভুবনেশ্বর’ পোস্টের সঙ্গে লিখেছিলেন, ‘‘আজ আমি গরীব বলে একা ভুবনেশ্বর যাচ্ছি৷ তৃণমূল করলে সিবিআই নিয়ে যেত৷’’ আসানসোলে ভোট প্রচারে গিয়ে তৃণমূলের সাংসদ পদপ্রার্থী মুনমুন সেন বলেছিলেন, ‘‘আমার মায়ের আত্মার শান্তির জন্য ভোট দিন৷’’ এর পাল্টা শতরূপ মুনমুনকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘‘মা-য়ের আত্মার শান্তি চাইলে তাঁর শ্রাদ্ধ করুন৷ জনগনের শ্রাদ্ধ করতে চাইছেন কেন?

তবে এখানেই থেমে থাকেননি শতরূপ৷ কলকাতা২৪x৭-কে তরুণ বাম নেতা আরও বলেন, ‘‘আগের বার সারা দেশে মাত্র ১১টা আসন জিতে আমরা ‘কিষান লং মার্চ’ করেছি। আর তৃণমূল ৩৪টা আসন জিতে ভুবনেশ্বর জেলের দিকে মার্চ করেছে।’’সোশ্যাল মিডিয়াতে শতরূপের সেন্স হিউমার নিয়ে অনেকেই প্রসংশা করেন৷ কিন্তু গতকাল একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন তিনি৷

শতরূপ ফেসবুকে একটি ছবি পোষ্ট করেছেন৷ হাতের মধ্যমা (আঙুলের) ছবিতে বিজেপি ও টিএমসি লেখা৷ পাশের গুটিয়ে রাখা অনামিকায় সিপিএমের নাম৷ এবং ভোট দেওয়ার চিহ্ন কালি৷ এই ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করার পর থেকেই সমালোচিত হচ্ছেন শতরূপ৷ পোস্টটি খুব তাড়াতাড়ি ভাইরাল হয়ে যায়৷ পোস্টের কমেন্ট বক্সে এসে অনেকেই শতরূপের এ হেন আচরণের সমালোচনা করেছেন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I