জয়পুর: অযোধ্যায় রাম জন্মভূমি নিয়ে চলছে মামলা আর সেখানে বিচারপতি রঞ্জন গগৈ কৌতূহলবশত জানতে চেয়েছিলেন রাম যদু বংশের ছিলেন। সেই বংশের কোনও উত্তরাধিকারী এখনও অযোধ্যায় বসবাস করেন কি না। এরপরই এক বিজেপি সাংসদের দাবি, রামের ছেলে কুশের বংশধর তিনি।

দিয়া কুমারী। বিজেপি সাংসদ তথা জয়পুরের রাজ পরিবারের সদস্য। তিনি জানিয়েছেন, তিনি রামের বংশধর। তাঁর কাছে প্রমাণ আছে বলেও দাবি করেন তিনি।

শনিবার ট্যুইট করে নিজেকে যদু বংশের সদস্য বলে উল্লেখ করেন রাজস্থানের রাজসমন্দের সাংসদ এই দিয়া কুমারী। তিনি লিখেছেন, ‘সারা বিশ্বে রামের বংশধররা ছড়িয়ে আছেন। আমার পরিবারও রামের বংশধর। আমার পরিবার রামের সন্তান কুশের বংশধর। ‘ এ জন্য তিনি গর্ব বোধ করেন বলেও জানাতে ভোলেননি দিয়া।

তিনি জানিয়েছেন, সুপ্রিম কোর্ট চাইলে প্রমাণ দিতে রাজি আছেন তিনি। একইসঙ্গে দ্রুত রাম মন্দির গড়ার দাবিও জানিয়েছেন তিনি। তাঁর দাবি, শুধু তিনি নন। তাঁর মত অনেকেই আছেন। রাঠৌররা নাকি রামের আর এক ছেলে লবের বংশধর বলেও জানিয়েছেন তিনি।

তাঁর কথায়, ‘কোনও উদ্দেশ্য নিয়ে আমি একথা বলছি না। এমনকি বিতর্কিত জমির সত্ত্ব বা অধিকার আমরা দাবি করছি না। এমনকী কোনও আইনি প্রক্রিয়ার অংশ হওয়ার ইচ্ছে আমাদের নেই। কোনও উদ্দেশ্য ছাড়াই নিজের মনের কথা আমি বলছি।’

দিয়া কুমারীর পারিবারিক নথিতে উল্লেখ আছে বংশের ৬২ তম বংশধর ছিলেন রামের বাবা দশরথ। অর্থাৎ ভগবান শ্রী রাম ছিলেন ৬৩ তম ও কুশ ৬৪ তম। জয়পুরের রাজ পরিবারের জয় সিং ও মাধো সিং-এর নামও আছে সেই নথিতে।