হায়দরাবাদ: তাঁর পারফরম্যান্স নিয়ে সমালোচকমহলে যতই কাটা-ছেঁড়া চলুক না কেন, কঠিন সময়ে ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলিকে পাশে পেয়ে গেলেন ঋষভ পন্ত৷ কেরিয়ারের শুরুতেই দারুণ সম্ভাবনা জাগানো পন্ত দিনে দিনে কোণঠাসা হচ্ছেন জাতীয় দলে৷ টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থা অটুট থাকলেও বিশেষজ্ঞরা খুশি নন ঋষভের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে৷ তাঁর ধারাবাহিক ব্যর্থতার দিকে তাকিয়ে প্রাক্তনরা ইতিমধ্যেই মন্তব্য করতে শুরু করেছেন যে, অবিলম্বে পারফর্ম করতে না পারলে খুব বেশি দিন তাঁকে সময় দেওয়া উচিত নয়৷

আরও পড়ুন: ‘বিরাট ধারাবাহিক হলেও সচিনের মানের নয়’

অর্থাৎ, এমন চলতে থাকলে জাতীয় দলে ঋষভ পন্তের সময় যে দ্রুত শেষ হয়ে যাবে, তা নিয়ে কার্যত একমত সমালোচকরা৷ ধোনির উত্তপসূরি হিসাবে বিবেচিত হলেও ব্যাট হাতে তেমন একটা রান নেই পন্তের৷ টেস্ট দলের প্রথম পছন্দ ছিলেন একসময়৷ ঋদ্ধিমান সাহার দুরন্ত কাম ব্যাকের পর টেস্ট দলের রিজার্ভ কিপারে পরিণত হয়েছেন তিনি৷ সীমিত ওভারের ক্রিকেটে সঞ্জু স্যামসন, ইসান কিষাণরা জাতীয় দলের দরজায় কড়া নাড়ছেন৷ স্যামসন তো স্কোয়াডে ঢুকেও পড়েছেন৷ অন্যদিকে লোকেস রাহুল ঘরোয়া ক্রিকেটে উইকেটকিপিং করায় ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে বিকল্প কিপার হিসাবে ঘোরাফেরা করছে লোকেশের নামও৷

আরও পড়ুন: রুমাল নিয়ে ম্যাজিক দেখিয়ে সেলিব্রেশন বোলারের

শুধু যে ব্যাটে রান নেই পন্তের এমনটা নয়৷ উইকেটকিপার হিসাবেও খুব একটা নির্ভরযোগ্য নন৷ ডিআরএসের ক্ষেত্রেও পন্তের ভুলভ্রান্তি চোখে পড়েরপ মতো৷ সব মিলিয়ে জাতীয় দলে এই মুহূর্তে প্রবল চাপে তরুণ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান৷

ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি অবশ্য মনে করেন যে, ঋষভকে সময় দেওয়া উচিত৷ ভারত অধিনায়কের কথায়, ‘ঋষভের প্রতিভা নিয়ে আমাদের কারও সংশয় নেই৷ জানি যে, সব ক্রিকেটারদের কর্তব্য দলের হয়ে ভালো পারফর্ম করা৷ তবে এই মুহূর্তে আমাদের সবার পন্তকে একটু জায়গা করে দেওয়া দরকার যাতে ওর উপর থেকে চাপ কমে৷ ওকে একটু সময় দেওয়া দরকার৷’

আরও পড়ুন: মাইলস্টোন থেকে এক ছক্কা দূরে ‘হিটম্যান’

কোহলি আরও বলেন, ‘পন্ত ভুল করলে দর্শকদের চিৎকার করা (ধোনি, ধোনি) মোটেও সম্মানজনক নয় ওর পক্ষে৷ কোনও ক্রিকেটারই জেনে শুনে ভুল করতে চায় না৷ আর কেউই এমন পরিস্থিতি পছন্দ করে না৷ দর্শকদের বোঝা উচিত যে পন্ত নিজের দেসে ক্রিকেট খেলছে৷ ঘরোয়া সমর্থকদের ওর ভুলগুলো বড় করে না দেখে বরং ওকে আরও উৎসাহিত করা উচিত৷ আরও আত্মবিশ্বাস জোগানো উচিত৷’