কলকাতা: করোনা আবহে রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা আরও মসৃণ করতে নয়া তৎপরতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের। টেলি মেডিসিন পরিষেবা শুরুর পথে রাজ্য সরকার। সবকিছু ঠিকঠাক চললে আগামী বুধবার ডক্টরস ডে থেকেই এই পরিষেবা চালু হয়ে যাবে বলে সোমবার নবান্নে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

করোনার করলা গ্রাসে গোটা বিশ্ব। মারণ ভইরাসের হানায় থরহরি কম্প দশা এরাজ্যেও। প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনায় মৃত্যু। করোনা মোকাবিলায় লকডাউন চলছে রাজ্যে।

এখনও গাড়ি চলাচল থেকে শুরু করে অন্যান্য পরিষেবাগুলি স্বাভাবিক হয়নি। যার জেরে প্রায়শই চিকিৎসা সংক্রান্ত ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে অনেককেই। কলকাতা-সহ একাধিক জেলা থেকে গত কয়েক মাসে এমন বহু অভিযোগ সামনে এসেছে।

সাধরণ রোগ-ব্যধির চিকিৎসায় বর্তমান পরিস্থিতিতে আমজনতার দুর্ভোগ কমাতে তৎপর রাজ্য সরকার। টেলি মেডিসিন প্রক্রিয়া শুরু করতে চলেছে রাজ্য সরকার। সবকিছু ঠিকঠাক চললে আগামী বুধবার ডক্টরস ডে থেকেই এই পরিষেবা চালু হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কলকাতা ও জেলায়-জেলায় এই পরিষেবা ধাপে ধাপে চালু করা হবে। নির্দিষ্ট নম্বরে ফোন করে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যার কথা জানালে বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেবেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘১ জুলাই টেলি মেডিসিন পরিষেবা চালুর চেষ্টা হচ্ছে। আপাতত ১২টি ফোন রেডি আছে। সেট আপ করতে ২-১ দিন সময় লাগবে। কলকাতা ও জেলায় পরিষেবা মিলবে।’

রাজ্যে টেলি মেডিসিন প্রক্রিয়া শুরুর ঘোষণার সঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘অনেক সময় সাধারণ মানুষ হাসপাতালে পৌঁছোতে পারছেন না। এখনও অনেক চেম্বার ঠিক মতো চালু নেই। টেলিফোনে এবার অ্যাডভাইস দেওয়া হবে।’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যেক জেলার জন্য টেলি মেডিসিন সেট আপ। প্রত্যেকটা জেলার সঙ্গে কানেকশন থাকবে। কলকাতার সঙ্গেও কানেকশন থাকবে। নম্বরগুলি বলে দেওয়া হবে। আস্তে আস্তে প্রতিটি জেলার জন্য আলাদা ফোন হবে।’

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV