নয়াদিল্লিঃ  নিজেকে বদলাচ্ছে ভারতীয় রেল। প্রযুক্তি থেকে পরিষেবা সর্বক্ষেত্রে ভোল বদলাচ্ছে ভারতীয় রেল। অবশ্যই যাত্রী সবাছন্দের কথা মাথায় রেখেই একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত ইতিমধ্যেই নিয়েছে ভারতীয় রেল। আর যার উদাহরণ হল দিল্লি রেলওয়ে স্টেশন। দেশের মধ্যে অন্তত্য গুরুত্বপূর্ণ এই রেল স্টেশন।

আর সেই স্টেশনের পুরো ভোল বদলে দেওয়া হয়েছে। একেবারে এয়ারপোর্টের মতো করে বদলে দেওয়া হয়েছে স্টেশনটিকে। সেই অসাধারণ লুক ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিও দিয়ে শেয়ার করেছেন রেলমন্ত্রী পীয়ুষ গোয়েল।

ভিডিওটি দেখলে আশ্চর্য হবেনই আপনি। পুরো স্টেশনটিকে এয়ারপোর্টের কায়দায় সুন্দরভাবে সাজিয়ে তোলা হয়েছে। যাত্রীরা যাতে রেল স্টেশনে ঢুকে এয়ারপোর্টের সবরকম সুবিধা পান সেদিকে বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। চলন্ত সিঁড়ি থেকে এলইডি লাইটের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। স্টেশনের দেওয়ালগুলিকে সুন্দরভাবে সাজিয়ে তোলা হয়েছে। যাত্রীদের সুবিধার্থে চলন্ত সিঁড়ি থেকে লিফটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। স্টেশনকে একটা মর্ডান লুক দেওয়ার জন্যে এলসিডি প্যানেল বসানো হয়েছে। যেখানে সমস্ত তথ্য দেওয়া রয়েছে। খুব সহজেই আঙুলের স্পর্শে তা দেখে নিতে পারবেন যাত্রীরা।

অত্যাধুনিক এই রেল স্টেশনটি তৈরি করা হলেও বিদ্যুৎ সঞ্চয়ের দিকেও বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। স্টেশনের ছাদে বসানো সোলার প্যানেল। সুর্জের আলোতেই তৈরি হওয়াতে শক্তিই দিল্লি স্টেশনকে আলোকিত করে। ফলে এক ধাক্কায় বিদ্যুৎের খরচও অনেকটাই কমে গিয়েছে রেলের তরফে জানানো হয়েছে। অন্যদিকে, ওয়েটিং রুমকেও সুন্দরভাবে সাজানো হয়েছে। বিলাসবহুল বসার জায়গা থেকে কি নেই সেখানে। ব্যবস্থা রাখা হয়েছে খাওয়াদাওয়ারও। একেবারে কম দামে নানারকম খাওয়ারে স্টল তৈরি করে দিয়েছে রেল। যেখানে যাত্রীরা খাওয়াদাওয়া সারতে পারবে। এছাড়া জলের ব্যবস্থা সহ অন্যান্য ব্যবস্থা তো রয়েছেই সেখানে।

শুধু দিল্লিই নয়, দেশের সমস্ত স্টেশনকে সুন্দরকে সাজিয়ে তোলার পরিকল্পনা নিয়েছে ভারতীয় রেল। বিভিন্ন স্টেশনগুলিতে চলন্ত সিঁড়ি, লিফট লাগানোর পরিকল্পনা নিয়েছে রেল। এছাড়াও যাত্রীদের সুবিধার্থে আরও বেশি করে ফুট ব্রিজ তৈরি থেকে শুরু করে নানারকম সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করছে ভারতীয় রেল। বিশেষত গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনগুলিতে এই সমস্ত সিদ্ধান্ত দ্রুত কার্যকর করার ভাবনা রেলের।