লখনউ: মুখ্যমন্ত্রীকে খুশি করতে কত কিছুই না করেন সরকারি অফিসারররা৷ সেই প্রচেষ্টায় লেগে গেল গেরুয়া রঙের পৌঁচ৷ সংবাদ সংস্থা এই রং মুখ্যমন্ত্রীর খুবই পছন্দের৷ টয়লেটে গিয়ে তিনি যাতে সেই রং থেকে বঞ্চিত না হন তার জন্যই উদ্যোগটি নেওয়া হয়েছে৷

এএনআই জানাচ্ছে, রাজ্যের হরদৈ এলাকা পরিদর্শনে যাওয়ার আগেই যোগী আদিত্যনাথের জন্য গেরুয়া রঙের টাইলস দেওয়া টয়লেট তৈরি করা হয়েছে৷ গেরুয়া রঙের টয়লেট শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত৷ এতে মুখ্যমন্ত্রীর আরাম হবে বলে মনে করছে স্থানীয় সরকারী কর্মীরা৷

যোগীর নেতৃত্বে বিজেপি সদ্য কৈরানা লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে পরাজিত হয়েছে৷ বিরোধী দল আরএলডি-র সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন৷ যোগী কুর্সিতে বসার পর থেকেই একের পর এক উপনির্বাচনে পরাজিত হয়েছে বিজেপি৷ উত্তরপ্রদেশে এই অবস্থায় চিন্তিত বিজেপির জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটি৷ চলছে বিভিন্ন কেন্দ্রের ফলাফল বিশ্লেষণ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।