ভোপাল : মজা করার জন্য অনেকেই অনেক ধরনের কাজ করে থাকেন। তা বলে দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে কাঁচ খাওয়ার কথা ভাবতে পারেন না কেউ। এরকম ই ঘটনা ঘটেছে মধ্যপ্রদেশে। এক আইনজীবী ৪০ বছর ধরে কাঁচ খাচ্ছেন।

দিনদোরি জেলার বাসিন্দা ওই আইনজীবীর নাম দয়ারাম সাহু। এই অভ্যেস খারাপ বলে মানলেও জানালেন গত চার দশকের বেশি সময় ধরে এটাই একমাত্র নেশা তাঁর ৷ আর এর প্রভাবে তার দাঁতের পাশাপাশি প্রভাব পড়ছে শরীরের উপরেও।

একটি সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, ৪০ বছর ধরে এটাই তাঁর নেশা। কাঁচ খাওয়ার জন্য তাঁর দাঁতের খুব ক্ষতি হচ্ছে। আগে অনেক বেশি কাচ খেলেও এখন কমিয়ে দিয়েছেন। নেশার জন্য তিনি নিজে কাচ খেলেও বাকিদের এটা করতে বারণই করেছেন ৷

তিনি আরও জানান নিছক মজার ছলেই তিনি খেয়েছিলেন তবে প্রথমবার কাঁচ খাওয়ার পরে তার বেশ ভালই লেগেছিল। কিন্তু তারপর ধীরে ধীরে এটা তার নেশাতে পরিণত হয়ে যায়। তবে নিজে খেলেও বাকিদের কাঁচ খেতে তিনি বারণ করেছেন।

শাহাপুরের সরকারী হাসপাতালের ডক্টর সাতেন্দ্র পারাস্তে জানিয়েছেন এমন চেষ্টা করাও উচিত নয়। এর ফলে শরীরের ভেতরে অনেক ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

আরও জানিয়েছেন, যেহেতু কাঁচ হজম করা যায় না তাই শরীরের ভেতরে গেলে এটা ক্ষতি করতে পারে। শরীরের ভেতরের কোন অঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হতেও পারে বলে জানিয়েছেন যার ফলে ঘা হয়ে যেতে পারে। তাই এই চেষ্টা না করতে পরামর্শ তাঁর।