কলকাতা: ১৪ ম্যাচে ৫১০ রান, অর্ধশতরান ৪টি। ২০১৯ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগে ব্যাট হাতে পার্পল ব্রিগেডকে কার্যত একার কাঁধেই টেনেছিলেন তিনি। দ্রে রাসের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে রাতের ঘুম উড়েছিল বিপক্ষের। বিধ্বংসী এই উইন্ডিজ ব্যাটসম্যান জানালেন আইপিএল কেরিয়ারের শেষদিন অবধি কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সি গায়েই খেলতে চান তিনি।

অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে গিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ। কিন্তু তাতে কী? কেকেআরের অফিসিয়াল অনলাইন শো ‘নাইটস আনপ্লাগড’ অনুষ্ঠানে কেকেআর নিয়ে নানা অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন জামাইকান। রাসেলের কথায়, ‘আমি একটা বিষয় আজ স্বীকার করতে চাই সেটা হচ্ছে আইপিএল এমন একটা প্ল্যাটফর্ম যেখানে আমি সবচেয়ে বেশি শিহরণ অনুভব করি। আমি ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়র লিগেও অংশগ্রহণ করি, কিন্তু আইপিএল বিশেষ করে ইডেন গার্ডেন্সে খেলার সঙ্গে অন্য কোনও জায়গায় খেলার তুলনা হয় না।’

কলকাতা সম্পর্কে বলতে গিয়ে দ্রে রাস জানিয়েছেন, ‘আমি কলকাতায় যে আপ্যায়ণটা পেয়ে থাকি ওটা বিশুদ্ধ ভালোবাসা। নিশ্চিতভাবে এই ভালোবাসা আমার উপর একটা চাপ তৈরি করে তবে সেই চাপটা নিতে আমি পছন্দ করি।’ রাসেল জানিয়েছেন ইডেনের দর্শক খারাপ দিনেও তোমায় সমর্থন জোগাবে। উইন্ডিজ ব্যাটসম্যানের কথায়, ‘ছয় মরশুম ধরে আমি কলকাতায় রয়েছি। যেখানে প্রত্যেকটা মুহূর্ত আমি উপভোগ করেছি। আমি জানি দু’টো ম্যাচ খারাপ খেলার পর তৃতীয় ম্যাচে আমি যখন ব্যাট হাতে নামব কলকাতার সমর্থকরা একই ভাবে আমায় স্বাগত জানাবে।’

তাই রাসেলের কথায়, আইপিএল থেকে অবসর নেওয়ার জায়গা হিসেবে কলকাতার চেয়ে ভালো অপশন আর হয় না। একইসঙ্গে চলতি বছর কোনও না কোনও সময় আইপিএলের বিষয়ে আশাবাদী উইন্ডিজ পিঞ্চ হিটার। যদিও এই মুহূর্তে তাঁর সবচেয়ে চিন্তার কারণ তাঁর সদ্যোজাত কন্যা সন্তান। স্ত্রী এবং সদ্যোজাত আপাতত মিয়ামিতে। প্রিয়জনদের ছাড়াই দেশে গৃহবন্দি রাসেল। তাঁর কথায়, ‘যদি ওদের কাছে থাকতে পারতাম ভীষণ ভালো হত। কিন্তু আমার হাতে কিচ্ছু নেই।’

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প