নয়াদিল্লি: বিতর্কিত অযোধ্যা মামলায় ঐতিহাসিক রায় ঘোষণা করেছে সুপ্রিম কোর্ট। রায়দানের ঠিক পরেই তিনি জানিয়েছিলেন পাঁচ একর জমি চাই না। অল-ইন্ডিয়া মজলিস-এ-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন নেতা আসাদুদ্দিন ওয়েইসি ফের সাফ জানিয়েছেন ‘মসজিদ ফিরে পেতে চাই’।

জাতীয়স্তরের একটি সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, “যা কিছু ভারতের সংবিধান এবং বহুত্ববাদের বিরোধিতা করে তার বিরোধিতা আমি করবই। আমার জন্য সংবিধানই শেষ কথা। সংবিধানই আমাকে সেই অধিকার দিয়েছে যেখান থেকে শ্রদ্ধার সঙ্গে আমি সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরোধিতা করতে পারি। যা সংবিধানের বিরুদ্ধ তার বিরোধিতা আমি করবই”।

পাশাপাশি আসাদুদ্দিন আরও জানিয়েছেন, “আমাদের যুদ্ধ একটুকরো জমির জন্য নয়। আমার আইনি অধিকার যেন অক্ষুন্ন থাকে সেইদিকে নজর রাখা। শীর্ষ আদালতও জানিয়েছে মসজিদ তৈরি করার জন্য কোন মন্দির ধ্বংস করা হয়নি। তাই আমি আমার মসজিদ ফেরত চাই।”

অল-ইন্ডিয়া মজলিস-এ-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন নেতা আসাদুদ্দিন ওয়েইসি এই বিষয়ে শুক্রবার একটি ট্যুইট করে জানিয়েছেন, “আমি আমার মসজিদ ফেরত চাই”।

সুপ্রিম কোর্ট মন্দির তৈরিতে শিলমোহর দিয়ে অযোধ্যাতেই মসজিদের জন্য আলাদা পাঁচ একর জমি দেবে বলে জানিয়েছে। সর্বভারতীয় মজলিস-ই-ইত্তিহাদুল মুসলিমিনের প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়াইসি বলেছেন, বাবরি মসজিদের মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায়ে তিনি সন্তুষ্ট না। সুপ্রিম প্রকৃতপক্ষে সর্বোচ্চ কিন্তু ভুলের ঊর্দ্ধে না।

তিনি বলেন, রায়ে আমি সুন্তুষ্ট না। তবে সংবিধানে আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আমাদের বৈধ অধিকার নিয়ে আমরা লড়াই করে যাচ্ছি। দান করা পাঁচ একর জমি আমাদের দরকার নেই। অল ইন্ডিয়া মুসলিম পারসোনাল ল’ বোর্ডের সঙ্গে আমি একমত, তারাও রায়ে অসন্তুষ্ট বলে জানান ওয়াইসি।

অযোধ্যার শহরে একটি মসজিদ নির্মাণে পাঁচ একর জমি বরাদ্দে আদালতের নির্দেশ নিয়ে তিনি বলেন, আমরা নিজেদের অধিকারের জন্য লড়ছি। ভারতের এই এমপি বলেন, আমার মত হচ্ছে, ভূমি দানের এই প্রস্তাব আমাদের প্রত্যাখ্যান করা উচিত। আমাদের পিঠ চাপড়াবেন না।

অযোধ্যা মামলার রায় নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের অভিযোগ এনে আইনজীবী পবন কুমার জাহাঙ্গিরাবাড পুলিশ স্টেশনে অল-ইন্ডিয়া-মজলিস-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন প্রেসিডেন্ট আসাদুদ্দিন ওইয়াসির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন। তিনি অভিযোগ এনেছেন তার মন্তব্যে সমাজের একশ্রেনীর মানুষকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন।