নিউজ ডেস্ক : কানের দুল আটকে দিচ্ছে গর্ভধারণ! এও সম্ভব! কিন্তু ওই যে বিজ্ঞান, যা সমস্ত অসম্ভবকেও সম্ভব করে তোলে। এক জোড়া কানের দুল বা একটা আংটি পরে অপরিকল্পিত গর্ভধারণের ঝুঁকি এড়ানো এখন সম্ভব। শুনতে অবাক লাগলেও এমনই গর্ভনিরোধক অলঙ্কার আবিষ্কারের দোর গোড়ায় দাঁড়িয়ে একদল মার্কিন বিজ্ঞানী।

অসাবধানে অপরিকল্পিতভাবে যৌন সঙ্গম হয়ে যেতেই পারে। এই পরিস্থিতিতে গর্ভধারণের ঝুঁকি এড়াতে অধিকাংশ মহিলাই বার্থ কন্ট্রোল পিল বা জন্মনিয়ন্ত্রক ওষুধের দ্বারস্থ হন। যা পরবর্তীকালে সমস্যার সৃষ্টি করে। এমনকি যে মহিলা এই পিল ব্যবহার করছেন, পরিকল্পিতভাবে সন্তান নিতে গেলে তাঁকে সমস্যায় পড়তে হতে পারে। এমনকি তাঁর সন্তান না হওয়ার আংশকাও থাকে৷

ফক্স নিউজ সূত্রে খবর, ‘জর্জিয়া ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি’র একদল গবেষক বিশেষ কানের দুল – হাতঘড়ি বা আংটির মতো অলঙ্কারের সঙ্গে গর্ভনিরোধক হরমোন বিশেষ উপায়ে যুক্ত করে দেওয়ার কথা ভাবছেন। এই গবেষণা সফল হলে এই গর্ভনিরোধক হরমোন ত্বকের মধ্যে দিয়ে শরীরের রক্ত প্রবাহের সঙ্গে মিশে যাবে। এখনও পর্যন্ত এই গয়না মানুষের শরীরে ঠিক কী ভাবে কাজ করবে তা নিয়েই পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে।

আপাতত ইঁদুর এবং শুয়োরের উপর এই গয়নার প্রভাব পরীক্ষা করে সাফল্য মিলেছে। ‘জর্জিয়া ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি’র ‘স্কুল অব কেমিক্যাল অ্যান্ড বায়োমলিকুলার ইঞ্জিনিয়ারিং’-এর অধ্যাপক মার্ক প্রুসনিৎস জানান, এই গর্ভনিরোধক অলঙ্কার গর্ভনিরোধক পদ্ধতিকে আরও আকর্ষণীয় ও সহজ করে তুলবে। মানুষের শরীরে এই গর্ভনিরোধক পদ্ধতি কতটা কার্যকরী হবে, তা নিয়ে আরও কয়েক ধাপ পরীক্ষা করা প্রয়োজন। তবে খুব শীঘ্রই এই গবেষণায় তাঁরা সফল হবেন বলে আশাবাদী অধ্যাপক প্রুসনিৎস।