ফাইল ছবি

রায়পুর: ইভিএমের প্রথম বোতাম টিপে ভোট দিন কংগ্রেসকে৷ নয়তো দ্বিতীয় বোতাম টিপলেই ভোটারদের ইলেকট্রিক শক লাগবে৷ আজগুবি কথা ভাষণে বলে বিতর্ক ছড়ালেন হাত শিবিরের বিধায়ক৷ ছত্তিশগড়ের কংগ্রেস বিধায়ক কাওয়াসি লাকমা বলেন ইভিএমের দ্বিতীয় বোতাম কখনই টিপবেন না৷ নয়তো ইলেকট্রিক শক লাগতে পারে আপনাদের৷

রাজ্যের কাঙ্কের জেলার কোরার এলাকায় নির্বাচনী ভাষণ দিতে গিয়ে এই বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে এলাকার পাঁচ বারের বিধায়ক ও শিল্প বাণিজ্য মন্ত্রী৷ স্বাভাবিকভাবেই মন্ত্রীর এই বক্তব্য নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে৷ কীভাবে ইভিএমের ব্যবহার শিখিয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করতে পারেন একজন নেতা? প্রশ্ন তুলেছে বিজেপি৷

আরও পড়ুন: এই আসনে ভোট বাতিল করতে চলেছে নির্বাচন কমিশন

ইতিমধ্যেই নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করার অভিযোগ নিয়ে তারা নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে৷ ভোটারদের ভুল বোঝানো হচ্ছে ও কংগ্রেসকে ভোট দেওয়ার জন্য উস্কানিমূলক মন্তব্য করা হচ্ছে, এমনই অভিযোগ বিজেপির৷ ৬১ বছরের এই বিধায়ক সুকমা জেলার কোন্তা আসনের ৫ বারের বিধায়ক৷ ২০১৩ সালের মাওবাদী হামলার সময়ে এই নেতাও মারাত্মকভাবে জখম হন৷

ছত্তিশগড়ের ১১টি আসনে তিনটি দফায় ভোট হচ্ছে৷ প্রথম দফায় ভোটের হার ছিল ৬৫.৮ শতাংশ৷ ১৮ ও ২৩শে এপ্রিল ফের ভোট রয়েছে রাজ্যে৷ উল্লেখ্য লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফা ভোটের আগেই রক্তাক্ত হয় ছত্তিসগঢ়ের দান্তেওয়াড়া। বৃহস্পতিবার রাজ্যের মাওবাদী উপদ্রুত এলাকা বস্তারে ভোট গ্রহণ ছিল। মঙ্গলবার ছিল প্রচারের শেষ দিন। সেই জন্যই নিরাপত্তাবাহিনীর বিশাল কনভয়ে প্রচারের কাজ করছিলেন দান্তেওয়াড়ার বিজেপি বিধায়ক ভীমা মান্ডবি। মিছিলে হামলা চালায় মাওবাদীরা। তাতেই নিহত হন বিধায়ক সহ বাকিরা৷

আরও পড়ুন : মসজিদে মহিলাদের প্রবেশধিকার চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা

এর পরেই প্রশ্ন ওঠে নিরাপত্তা নিয়ে৷ অন্যদিকে দান্তেওয়াড়া পুলিশের দাবি, পরিস্থিতি ভয়াবহ সেটা আগেই জানানো হয়েছিল৷ কিন্তু বিধায়ক সেই কথা উড়িয়ে দিয়েছিলেন৷ দান্তেওয়াড়া জেলার পুলিশ সুপার অভিষেক পল্লব জানান, বিধায়ক ভীমা মান্ডবীকে আগে থেকেই সতর্ক করা হয়েছিল৷ তাঁকে বলা হয়েছিল, মিছিল না করতে৷ তবুও তিনি মিছিল নিয়ে গিয়েছিলেন৷ তার পরেই হামলা হয়৷ পুলিশ জানিয়েছে, কুয়াকোন্ডা এলাকার শ্যামগিরিতে এই বিস্ফোরণ ঘটায় মাওবাদীরা৷ এর পরেই তারা গুলি চালাতে শুরু করে৷