উত্তপ্ত বিধাননগর। বহিরাগত ঠেকাতে পুলিশের লাঠিচার্জ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বিধানগর পুরনিগমের ভোট ঘিরে সকাল থেকেই রণক্ষেত্র ৪১ নম্বর ওয়ার্ড। বেলা বাড়তেই ওই ওয়ার্ডে বাকি বুথের দখল নিতে হাজির হলেন বিধাননগরের বিধায়ক সুজিত বসু এবং বেলেঘাটার বিধায়ক পরেশ পাল। গণমাধ্যমের ক্যামেরায় সেই ছবি দেখা গেলেও নীরব দর্শক পুলিশ। সুজিত একা নয়, এলেন নিজের অনুগামী বাহিনীর সঙ্গে। পিছিয়ে নেই পরেশ পালও। তাঁর অনুগামীরা এসেই পেট্রোল বোমা ছোড়া শুরু করে বলে অভিযোগ। অবস্থার অবনতি দেখে অতঃপর ব্যবস্থা নিতে এগিয়ে আসে পুলিশ। তাড়া খেয়ে সুজিত-পরেশের অনুগামীরা এলাকা ছাড়া হলেও থামেনি বোমা হামলা।

হঠাৎ বিধাননগরের পুরনিগমে সুজিত বসু, পরেশ পালেরা কী করছিলেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ইতিমধ্যেই, নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের এই দুই বিধায়কের বিরুদ্ধে। উল্লেখ্য, সকাল থেকেই তৃণমূল প্রার্থী অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়ের সমর্থনে হাজির হচ্ছিল বহিরাগত তৃণমূল কর্মীরা। এরপরেই বুথ দখল করতে বোমা ছুঁড়তে দেখা যায় ওই বহিরাগতদের। ৪১ নম্বরের নির্দল প্রার্থী অনুপম দত্তকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ গোটা বিষয়ে এখনও মুখ না খুললেও স্থানীয় সূত্রে খবর সকাল থেকে মোট সাতটি বোমা ছোঁড়া হয়েছে। আপাতত সল্টলেক এজি ব্লকের সামনে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।