স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: পুজোর দিনগুলিতে পথ নিরাপত্তা নিয়ে মানুষকে সচেতন করতে তৃতীয়া থেকেই মাঠে নামল কোচবিহারের একটি সেচ্ছাসেবী সংস্থা৷ এদিন কোচবিহার সাগর দিঘী চত্বরে এক সচেতনতা কর্মসূচি পালন করা হয়৷
এদিনের এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহারের সাংসদ পার্থ প্রতিম রায়, কোচবিহার পুরসভার চেয়ারম্যান ভূষণ সিং ও টাউন ওসি সোনাম মহেশ্বরী। এদিন সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ নিয়ে র্যারলির পাশাপাশি হেলমেটহীন বাইক চালকদের নতুন হেলমেট ও গোলাপফুল তুলে দিয়ে সচেতন করা হয়।

বাইক চালকদের মাথায় হেলমেট পরিয়ে দেন সাংসদ প্রার্থ প্রতিম রায় ও পুরসভার চেয়ারম্যান ভূষণ সিং। সাংসদ দুই সংগঠনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এই কর্মসূচির প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনুপ্রেরণায় এই কর্মসূচির ফলে রাজ্যে দুর্ঘটনা অনেকটাই কমেছে৷’’ কিন্তু এখনও অনেক কাজ বাকি এই কাজে রাজ্য সরকারকে সহায়তা করতে ব্লাড ডোনার অর্গানাইজেশন ও কোচবিহার ভেহিকাল ওনার্স রিপ্রেজেন্টেটিভ ওয়েলফেয়ার সোসাইটি উদ্যোগ নিয়েছে তা প্রশংসার দাবি রাখে।

ব্লাড ডোনার অর্গানাইজেশনের সম্পাদক রাজা বৈদ্য বলেন, ‘‘পুজোর কটিদিন যাতে মানুষ সুরক্ষিত ভাবে যাতায়াত করতে পারেন৷ তাঁরা যাতে পথ নিরাপত্তার নিয়মগুলি মেনে চলেন তার জন্য এই উদ্যোগ।’’ এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে তাঁদের উৎসাহিত করার জন্য সাংসদ পার্থ প্রতিম রায়, চেয়ারম্যান ভূষণ সিং ওসি টাউন সোনাম মাহেশ্বরিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

এই কর্মসূচি উপলক্ষে কোচবিহার কাছারির মোড়ে শুক্রবার সারারাত ব্যাপী রাস্তার উপর আলপনা তৈরি করেন সুরের সিপাহী নামে একটি সংস্থার কর্মীরা। সেখানে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ নিয়ে মানুষকে চেতন করা হয়েছে। রাজা বৈদ্য জানান এই ধরনের উদ্যোগ এই প্রথম কোচবিহারে, যদিও আলপনা আকার পর ভোরের দিকে বৃষ্টিতে তাঁর ক্ষতি হয়ে যায়, নতুন করে এই আলপনা আঁকা হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।