নয়াদিল্লি: আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনালে ভারত সরকারের বিরুদ্ধে বড়োসড়ো জয় পেল ভোডাফোন। শুক্রবার ‌হেগ-এর আন্তর্জাতিক মধ্যস্থতা ট্রাইব্যুনালের রায়ের ফলে ২০,০০০কোটি টাকা বকেয়া কর মকুব হয়ে গেল। তাছাড়া আবার মামলার খরচ বাবদ ভোডাফোনকে আরও ৪০ কোটি টাকা দিতে বলা হয়েছে।

এক দশকের বেশি দিন ধরে চলছে ভারত সরকারের সঙ্গে ভোডাফোনের এই বিবাদ। অবশেষে শুক্রবার এই আন্তর্জাতিক ট্রাইবুনাল ভারত সরকারের দাবিকে অনার্য বলে জানিয়েছে। নির্দেশ দিয়েছে ভারত সরকার আর ভোডাফোনের কাছ থেকে ওই ২০,০০০ কোটি টাকা দাবি করতে পারবে না। কারণ যুক্তি হিসেবে জানানো হয়েছে, সেটা হলে তা হবে ভারত নেদারল্যান্ড বিনিয়োগ চুক্তির পরিপন্থী।

ভোডাফোনের হয়ে যে আইনি পরামর্শদাতা সংস্থাটি ট্রাইব্যুনালের লড়ছিল সেখানকার প্রতিনিধি রায়ের পর জানিয়েছেন, অবশেষে ভোডাফোন বিচার পেল। ভারত সরকার রেট্রোস্পেকটিভ সংশোধনী কার্যকর করে এই কর আদায়ের চেষ্টা করেছিল। যেটা একসময় সুপ্রিম কোর্ট খারিজ করে দেয়। এবার ট্রাইবুনাল জানিয়ে দিল, এটা দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য চুক্তির বিরোধী।

২০০৭ সালে টেলিকম পরিষেবা সংস্থা হাচিসনকে অধিগ্রহণ করেছিল ভোডাফোন১১০০ কোটি ডলারে। আর সেই অংক ভোডাফোনের আয় হিসেবে দেখিয়ে ভারত সরকার কর চাপিয়েছিল। শুধু তাই নয় কর না দেওয়ার জন্য ৭৯০০ কোটি টাকা জরিমানা ধার্য করে। তারপরে এই দুয়ে মিলে দুইহাজার কোটি টাকার বকেয়া আদায় নোটিশ পাঠিয়েছিল অর্থমন্ত্রক। তখন এর বিরুদ্ধে মামলা করে সুপ্রিমকোর্টে জিতেছিল টেলিকম সংস্থাটি।

তারপর আইন সংশোধন করে রেট্রোস্পেকটিভ কর চাপানো হয়। যার বিরুদ্ধে ভোডাফোন আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনালে আবেদন করেছিল।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।