মস্কো: রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ফোন করলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লামিদির পুতিন। কোনও আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক বিষয় এর সঙ্গে জড়িত নেই। ভারতের অভ্যন্তরিন বিশয় নিয়েই নিজের অভিমত প্রকাশ করেছেন বামপন্থার পীঠস্থান রাশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান।

আরও পড়ুন- এলাকায় থমকে উন্নয়ন, পঞ্চায়েত সেক্রেটারিকে বেঁধে পেটাল ক্ষুব্ধ জনতা

সংবাদ সংস্থা এএনআই জানাচ্ছে, শুক্রবার রাতের দিকে ভারতের রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট। ভারতের সাংবিধানিক এবং প্রশাসনিক প্রধানদের ফোন করে তিনি বলেন, “হিমাচল প্রদেশে যে বাস দুর্ঘটনায় প্নেক শিশু এবং কিশোর-কিশোরীর প্রাণ গিয়েছে তার জন্য আমি মর্মাহত। অনুগ্রহ করে আপনারা আমার সমবেদনা গ্রহণ করবেন।”

এখানেই শেষ হয়ে যায়নি রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের বক্তব্য। ভ্লামিদির পুতিন আরও বলেছেন, “আমি আপনাদের কাছে অনুরোধ করছি ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবার এবং পরিজনদের কাছে আমার সমবেদনা এবং সমর্থন পৌঁছে দেবেন।”

আরও পড়ুন- গ্রামোন্নয়নের স্বার্থে সরকারি স্কুলের মেঝেতেই ঘুমালেন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী

হিমাচল প্রদেশের কুলুতে মর্মান্তিক বাস দুর্ঘটনায় প্রায় ৫০ জন প্রাণ হারিয়েছেন৷ ৩৪ জন গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি৷ ৮০ জনেরও বেশি যাত্রী নিয়ে বাসটি হিমাচল প্রদেশের বাঞ্জার থেকে গড়াঘুসানি যাচ্ছিল৷ রাস্তাতেই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গভীর খাদে উলটে পড়ে বাসটি৷ অতিরিক্ত যাত্রী বহনের জন্যই এই দুর্ঘটনা বলে প্রশাসন সূত্রে খবর৷ বাঞ্জার তেহসিলের ধোত মোড়ের কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে৷ বাসটির রেজিস্ট্রেশন নাম্বার HP 66-7065৷

হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জয় রাম ঠাকুর গোটা ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন৷ প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুর্ঘটনায় আহতদের সবরকম চিকিৎসা ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী গোবিন্দ সিং ঠাকুর সিমলা থেকে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন৷

গোটা ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও৷ ট্যুইট করে তিনি লেখেন কুলুর দুর্ঘটনা মর্মান্তিক৷ অত্যন্ত শোকাহত৷ মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা রইল৷ আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করি৷ হিমাচল প্রদেশ সরকারকে সবরকম সাহায্য করতে প্রস্তুত কেন্দ্র৷