স্টাফ রিপোর্টার, বোলপুর: বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা করার জন্য শংসাপত্র জমা দিতে হয়৷ আর এবার সেই শংসাপত্র ভুয়ো জমা দেওয়ার জেরে গ্রেফতার করা হল টিএমসিপি ছাত্র নেতা জামশেদ আলি খানকে৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে শান্তিনিকেতন থানায় অভিযোগ জানানো হয়৷

অভিযোগ, বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার জন্য ভরতির সময় সার্টিফিকেট জমা দিয়েছিলেন জামশেদ৷ সেই শংসাপত্র খতিয়ে দেখার সময় কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হয়, শংসাপত্রটি ভুয়ো৷ এরপরেই বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়৷ অভিযোগ খতিয়ে দেখে শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ৷ আর তারপরই গ্রেফতার করা হয় তৃণমূল ছাত্রনেতা জামশেদ আলি খানকে৷

বিশ্বভারতী সূত্রে খবর, চলতি বছরে পার্সি ভাষা নিয়ে গবেষণার প্রবেশিকা পরীক্ষার জন্য স্নাতকোত্তরে শংসাপত্র এবং প্রয়োজনীয় নথি জমা দেয় জামশেদ৷ কিন্তু সেই শংসাপত্র ভুয়ো বলে সন্দেহ হতেই কর্মসচিব সৌগত চট্টোপাধ্যায় শান্তিনিকেতন থানায় অভিযোগ জানান৷ অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ জামশেদকে এই বিষয়ে প্রথমে জিজ্ঞাসাবাদ করে৷ তার কথায় অসঙ্গতি লক্ষ্য করলে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷

যদিও জামশেদের অনুগামীদের দাবি, সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা নিয়ে বিশ্বভারতীতে যে আন্দোলন চলছিল তার নেতৃত্বে ছিল জামশেদ৷ আন্দোলন থেকে বিরত করতেই এই ধরনের ষড়যন্ত্র করা হয়েছে৷ শনিবার ধৃতকে বোলপুর আদালতে তোলা হবে৷