ভাইজাগ: ভাইজাগে ভয়াবহ গ্যাস দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। মৃতদের পরিবারকে ১ কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করল সরকার।

ঘটনায় ১১ জনের মৃত্যু হলেও অসুস্থ হয়ে পড়েছে বহু মানুষ। কয়েক’শ গ্রামবাসী অসুস্থ হয়ে ছুটে যান হাসপাতালে। কারও শ্বাসকষ্ট হচ্ছে, কারও মাথা যন্ত্রণা আর বমি।

এই ঘটনায় মৃতদের পরিবারকে ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডি। অসুস্থদের ১০ লক্ষ টাকা ও যাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে তাদের প্রত্যেককে ১ লক্ষ টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করা হয়েছে।

কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন, গ্যাস লিক হওয়া এলজি পলিমার ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ওই প্লান্টের নিকটবর্তী বাসিন্দারা জানিয়েছে, তাঁদের চোখ জ্বালা করছে ও নিশ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা হচ্ছে। এরপরেই তাঁদের হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এই ঘটনার পরেই গ্রেটার বিশাখাপত্তনম পৌর কর্পোরেশন টুইট করে জানিয়েছে, গোপালপট্টনামের এলজি পলিমারে ছিদ্র সনাক্ত করা গিয়েছে। এছাড়া ওই এলাকার আশেপাশের লোকেদেরও বাড়ির বাইরে বেরোতে নিষেধ করা হয়েছে।

একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, রাস্তায় কমপক্ষে একশো লোক দাঁড়িয়ে রয়েছে, তারা আক্রান্তদের সাহায্য করার জন্য চেষ্টা করছে এবং যে কজন অসুস্থকে পারছে তাঁদের নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে পৌঁছে দিচ্ছে। ওই ভিডিওতে দূরে সাইরেনের শব্দও শোনা যাচ্ছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.