নয়াদিল্লি: সত্য সেলুকাস বিচিত্র এই দেশ! লকডাউনে গৃহবন্দি অবস্থায় বিরাট-অনুষ্কা যখন প্রেমিক যুগলদের একের পর এক রিলেশনশিপ গোল শেখাচ্ছেন, তখন হঠাৎই #VirushkaDivorce ট্রেন্ডিংয়ে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া। শুক্রবার নেটাগরিকদের অবাক করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে এই হ্যাশ ট্যাগ। ঘটনার উৎস সন্ধান করতে গিয়ে বেরিয়ে এল নেপথ্য কারণ।

রিলেশনশিপে থাকাকালীন বিরাট-অনুষ্কার বিচ্ছেদ নিয়ে সরগরম হয়েছিল বিনোদুনিয়া। সেটা ২০১৬’র ঘটনা। তবে সব মন কষাকষি দূরে সরিয়ে রেখে ফের এক হয়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক এবং ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্ট লেডি। মধ্যস্থতাকারী হিসেবে সেসময় উঠে এসেছিল কিং খানের নাম। কিন্তু ফের হঠাৎ এমন কী হল দু’জনের মধ্যে, যার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় #VirushkaDivorce ট্রেন্ডিংয়ে।

ঘটনার সূত্রপাত সাম্প্রতিক সময় অ্যামাজন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে অনুষ্কা শর্মা প্রযোজিত জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজ ‘পাতাল লোক’কে ঘিরে। ওয়েব সিরিজ প্রেমীদের মনে সাড়া জাগানো এই ওয়েব সিরিজটি নাকি ‘দেশবিরোধী’। এমনই অভিযোগকে সামনে রেখে প্রযোজক অনুষ্কার বিরুদ্ধে হত মে মাসে সুর চড়িয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক নন্দকিশোর গুর্জর। এবিষয়ে অনুষ্কার বেটার হাফ কোহলির কাছে অভিযোগ জানাবেন বলেও মনস্থির করেছিলেন ওই বিধায়ক।

এখানেই শেষ নয়। পরবর্তীতে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মকে হাতিয়ার করে বিজেপি বিধায়ক বলেন এমন ‘দেশবিরোধী’ ওয়েব সিরিজ বানানোর জন্য অনুষ্কার সঙ্গে বিবাহ-বিচ্ছেদ করা উচিৎ বিরাটের। এই দাবির পিছনে গুর্জরের যুক্তি ছিল বিরাট দেশের জন্য খেলে তাই স্ত্রী অনুষ্কার এমন কাজে ভারত অধিনায়কের একাবারেই মদত দেওয়া উচিৎ নয়। আর ঠিক সেই কারণেই ওই বিজেপি বিধায়কই সোশ্যাল মিডিয়ায় চালু করেন #VirushkaDivorce।

যদিও গুর্জরের চালু করা এমন অভিযোগকে ক্রিকেট অনুরাগীরা মজার ছলে উড়িয়ে দিয়েছেন। #VirushkaDivorce ট্রেন্ডিংয়ের এবং সঙ্গে ওই বিজেপি বিধায়ক এখন মিম কনটেন্ট হিসেবে পরিণত হয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এর আগে বাইশ গজে বিরাট ব্যর্থ হলে অভিযোগের আঙুল উঠেছে বলি অভিনেত্রীর দিকে। কিন্তু বারংবার বিরাটের পাশে থেকে তাঁর সফরসঙ্গী হয়ে রিলেশনশিপ গোল শিখিয়ে এসেছেন অনুষ্কা। তবে ভিত্তিহীন অভিযোগকে কেন্দ্র করে বিরুষ্কা’কে নিয়ে তৈরি এমন ট্রেন্ড মুখ থুবড়ে পড়ার ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় বিরল।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ