নয়াদিল্লি: সংকটে দেশ, সংকটে গোটা বিশ্ব। আর দেশের এমন সংকটের সময় সাধারণ মানুষকে সচেতন থাকার আহ্বান নিয়ে আগেও বার্তা দিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্টলেডি তথা বেটার হাফ অনুষ্কা শর্মাকে নিয়ে দিনকয়েক আগেও এক ভিডিওবার্তায় অনুরাগীদের সতর্ক করেছিলেন। দেশে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর ফের একসঙ্গে দেশের নাগরিকদের উদ্দেশ্যে ভিডিওবার্তা দিলেন ‘বীরুষ্কা’।

পরিস্থিতি কতটা গুরুতর সেটা দেশের মানুষ বুঝুন। ভিডিওবার্তায় জানালেন ভারতীয় ক্রিকেটের পোস্টার বয় ও তাঁর সহধর্মিনী। মহামারী নোভেল করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য ঘরের মধ্যে থেকে মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিলেন বীরুষ্কা। ভিডিওবার্তায় তাঁরা জানালেন,’এটা আমাদের কাছে একটা কঠিন পরীক্ষার সময়। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝুন এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যা নির্দেশ দিয়েছেন সবটা মেনে চলার চেষ্টা করুন। ঐক্যবদ্ধ থাকার চেষ্টা করুন। এটা প্রত্যেকের কাছে আমাদের আবেদন।’

ভারতীয় অ্যাথলিটদের মধ্যে কোহলি এমন একজন যিনি করোনা উদ্বেগের মাঝে একাধিকবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও পোস্ট করে দেশের মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করেছেন। এছাড়াও তালিকায় রয়েছেন সচিন তেন্ডুলকর, পিভি সিন্ধু, বীরেন্দ্র সেহওয়াগ, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কিংবা সাইনা নেহওয়াল। যারা গৃহবন্দী থেকে নোভেল করোনার প্রকোপ এড়াতে দেশের মানুষকে সচেতন করেছেন।

মারণ COVID19-র কারণে এই মুহূর্তে স্বাস্থ্য সংকট ইউরোপ, আমেরিকার মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোতেও। পৃথিবীব্যাপী ৩ লক্ষ ৭৫ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত মারলণ এই ভাইরাসে। মৃত্যু হয়েছে ১৬ হাজারেরও বেশি মানুষের। বুধবার সংকটের মাঝেই স্পেন ও আর্জেন্তিনার হাসপাতালে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কেনার জন্য ১ মিলিয়ন ইউরো ভাগ করে দিয়েছেন লিও মেসি। সমপরিমাণ অর্থ সাহায্য করেছেন প্রাক্তন বার্সা কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা।

অন্যদিকে লিসবন ও পোর্তোর দু’টি হাসপাতালে ভেন্টিলেটর, আইসোলেশন বেড ও অন্যান্য সরঞ্জাম কেনার জন্য ১.০৮ মিলিয়ন ইউরো অর্থ তুলে দিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও তাঁর এজেন্ট জর্জ মেন্ডেজ।