নয়াদিল্লি: ভারতে ক্রিকেট ও অলিম্পিক স্পোর্টসগুলির মধ্যে তফাৎটাকে যেভাবে দেখা হয়, বাস্তবে ঠিক তার উলটো ছবি দেখতে পাওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগ৷ টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ওপেনারের মতে, অলিম্পিক, কমনওয়েলথ গেমসের মতো বহুজাতিক প্রতিযোগিতাগুলি ক্রিকেট ইভেন্টের থেকে অনেক বড় মাপের৷

একটি বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে সেহওয়াগ বলেন, ‘আমি সবসময় মনে করি অলিম্পিক ও কমনওয়েলথ গেমসের আসর ক্রিকেটের থেকে অনেক বড়৷ আমার মনে হয় অ্যাথলিটদের আরও ভালো পরিচর্যা হওয়া উচিত৷ ওদের জন্য ভালো খাবারের ব্যবস্থা করা, পুষ্টির দিকে যথাযথ নজর রাখা, ভালো ফিজিও ও ট্রেনারের বন্দোবস্ত করা দরকার৷’

আরও পড়ুন: বিশ্বজয়ের পুরস্কার, ডব্লুডব্লুই চ্যাম্পিয়নশিপ বেল্ট হাতে পোজ আর্চারদের

বীরু আরও বলেন, ‘বহু অ্যাথলিটের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি যে, আমরা ক্রিকেটাররা যে ধরণের সুযোগ সুবিধা ভোগ করি, অ্যাথলিটরা তার ১০-২০ শতাংশও পায় না৷ তার পরেও তারা দেশের জন্য পদক নিয়ে আসে৷ যেটা পায়, তার থেকে অনেক বেশি পাওয়ার যোগ্য ওরা৷ কারণ, ওরা পদক এনে দেশকে গর্বিত করে৷’

দেশের হয়ে ১০৪টি টেস্ট, ২৫১টি ওয়ান ডে ও ১৯টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচে ১৭ হাজারের বেশি রান করা ও ১৩৬টি উইকেট নেওয়া সেহওয়াগ মনে করেন যে, অন্যান্য খেলায় কোচেদের যেভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়, ক্রিকেটাররা ঠিক ততটা কৃতিত্ব দেন না৷ তার কারণও বর্ণনা করেছেন তিনি৷

আরও পড়ুন: ধোনিকে ছাড়াই দঃ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজের দলঘোষণা বোর্ডের

এ-প্রসঙ্গে সেহওয়াগ বলেন, ‘ক্রিকেটারদের জীবনের বড় ভূমিকা পালণ করেন কোচেরা৷ তবু আমরা কোচেদের ততটা কৃতিত্ব দিই না কখনও৷ সব কৃতিত্বটা নিজেরাই দাবি করি৷ অন্যান্য খেলায় কোচেদের সঙ্গে যতটা যোগাযোগ থাকে, জাতীয় দলে ঢুকে পড়ার পর ক্রিকেটে সেটা থাকে না বলেই বোধহয় কোচেরা আড়ালে থেকে যান৷ অন্যান্য খেলায় শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একজন অ্যাথলিটের কোচকে প্রয়োজন হয়৷’