কলকাতা: বীরেন্দ্র সেহওয়াগের টুইট মানেই নেটিজেনদের জন্য মুখরোচক বিষয়৷ খেলা ছাড়ার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত সক্রিয় বীরুর নিশানায় এবার প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়৷ একদা জাতীয় দলে নিজের অধিনায়কের জন্মদিনে রসালো এক টুইট করেন সেহওয়াগ৷

সোমবারই ৪৭ বছরে পা দিলেন মহারাজ৷ টুইটারে জন্মদিনের শুভেচ্ছাবার্তায় বীরু এক নতুন নাম দেন সৌরভকে৷ প্রাক্তন দলনায়ককে তিনি ‘৫৬ ইঞ্চি অধিনায়ক’ সম্বোধন করেন৷ কেন এমন নাম (৫৬ ইঞ্চি), টুইটে তার যথাযথ ব্যখ্যা দিয়েছেন সেহওয়াগ৷ সঙ্গে যথাযথ একটি ছবির কোলাজও পোস্ট করেন তিনি৷

ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জয়ের পর লর্ডসের গ্যালারিতে খালি গায়ে সৌরভের জার্সি ওড়ানোর ছবির সঙ্গে তাঁর বিশ্বকাপ কেরিয়ারের পরিসংখ্যানের ছবি সংযুক্ত করেছেন সেহওয়াগ৷ টুইটে বীরু লিখেছেন, ‘একজন ৫৬ ইঞ্চি ক্যাপ্টেন ‘দাদা’ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা৷’ নীচে সেহওয়াগ লেখেন, ‘৫৬ ইঞ্চির ছাতি৷ ৭ নম্বর মাসের (জুলাই) ৮ তারিখে জন্ম৷ ৮x৭=৫৬৷ যাঁর বিশ্বকাপের গড় ৫৬৷ ঈশ্বর তোমার মঙ্গল করুন৷’

সংখ্যাতত্ত্বের হিসাবে ৮ (তারিখ) ও ৭ (মাস) এর গুনফল হয় ৫৬৷ খালি গায়ের সৌরভকে দেখিয়ে সেহওয়াগ বোঝাতে চেয়েছেন তাঁর ছাতি ৫৬ ইঞ্চির৷ আর বিশ্বকাপের ২১টি ম্যাচে সৌরভ ৫৫.৮৮ গড়ে ১০০৬ রান করেছেন৷ ভগ্নাংশের হিসাব এড়িয়ে গেলে বিশ্বকাপে সৌরভের ব্যাটিং গড় দাঁড়ায় ৫৬৷ সেহওয়াগের এমন মজার টুইটে বিস্তর লাইক ও কমেন্ট পড়ে৷

সোশ্যাল মিডিয়ায় জন্মদিনে সৌরভকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে আইসিসি৷ টুইটারে সৌরভের চারটি ছবির কোলাজ পোস্ট করে আইসিসি’র তরফে লেখা হয়, ‘ব্যাটসম্যান, বোলার, ক্যাপ্টেন, ধারাভাষ্যকার৷ একজন মানুষ, অনেক মুখ (বিভিন্ন ভূমিকা)’৷

ক্রিকেট বিশ্বকাপের অফিসিয়াল টুইটার পেজে সৌরভকে শুভেচ্ছা জানিয়ে লেখা হয়, ‘২১ ম্যাচে ১০০৬ রান৷ ভারতীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ ইনিংস (১৯৯৯ বিশ্বকাপে ১৮৩)৷ একটি বিশ্বকাপে ৩টি সেঞ্চুরি (২০০৩)৷ অসাধারণ ক্রিকেটার৷ হ্যাপি বার্থডে দাদা৷’

বিসিসিআই-এর তরফে অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে সৌরভকে অভিনন্দন জানিয়ে লেখা হয়, ‘অনেকের কাছে অনুপ্রেরণা এবং যথার্থই একজন নেতা৷ জন্মদিনের শুভেচ্ছা৷’

তাঁর আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি দিল্লি ক্যাপিটালস ছাড়াও সৌরভকে টুইটারে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছে কলকাতা নাইট রাউডার্স, সানরাইজার্স হায়দরাবাদ, কিংস ইলেভেন পঞ্জাব, মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ফ্র্যাঞ্চাইজিও৷ এছাড়া প্রাক্তন বোর্ড সভাপতি অনুরাগ ঠাকুর, ভিভিএস লক্ষ্মণ, প্রজ্ঞান ওঝা, যুবরাজ সিং, হরভজন সিং, ঋদ্ধিমান সাহা, শিখর ধাওয়ানরাও৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প