নয়াদিল্লি: ‘রবি শাস্ত্রীকে পুনরায় ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে দেখলে খুশি হব।’ ক্যারিবিয়ান সফরে উড়ে যাওয়ার আগে দিনদু’য়েক আগে সওয়াল করেছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তবে কোহলির এমন মন্তব্য আগামিদিনে দলের কোচ বাছাইয়ের ক্ষেত্রে অ্যাডভাইসরি কমিটিকে কোনওভাবে প্রভাবিত করবে না, সাফ জানিয়ে দিলেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন কোচ তথা সিএসি সদস্য অংশুমান গায়কোয়াড়।

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেলেও ৪৫ দিনের এক্সটেনশন পিরিয়ডে ক্যারিবিয়ান সফরে কোচ হিসেবে দলের সঙ্গে উড়ে গিয়েছেন শাস্ত্রী। তবে আগামিদিনে কোহলিদের নয়া কোচ বাছতে ইতিমধ্যেই তৎপর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। এরইমধ্যে সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে উড়ে যাওয়ার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে কোহলি জানিয়েছিলেন, ‘ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি এখনও আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেনি৷ ওরা যদি আমার মতামত জানতে চাইলে আমি ওদের সঙ্গে কথা বলব। রবি ভাইয়ের সঙ্গে দারুণ ভালো সময় কেটেছে৷ শাস্ত্রী পুনরায় দায়িত্ব পেলে আমি খুশি হব।’

কিন্তু কোহলির এমন মন্তব্য যে খুব সহজে গ্রহণযোগ্য হবে না সেটা পরিষ্কার বুঝিয়ে দিলেন অ্যাডভাইসরি কমিটির অন্যতম সদস্য অংশুমান গায়কোয়াড়। প্রাক্তন বিশ্বজয়ী অধিনায়ক কপিল দেবের নেতৃত্বে ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটিই আগামীদিনে ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে বেছে নেবে ভারতীয় দলের নতুন কোচ। যাতে পুনরায় কোচ হিসেবে আবেদনের ক্ষেত্রে অটোমেটিক এন্ট্রি পেয়েছেন রবি শাস্ত্রী ও সাপোর্ট স্টাফেরা। কিন্তু অ্যাডভাইসরি বিসিসিআইয়ের গাইডলাইনের অপেক্ষায় রয়েছে। সেক্ষেত্রে অধিনায়কের এমন মন্তব্য কোচ বাছাই প্রক্রিয়াকরণে কোনওভাবে প্রভাব ফেলবে না। জানিয়ে দিলেন গায়কোয়াড়।

আইএএনএস’কে ভারতীয় দলের প্রাক্তন কোচ জানিয়েছেন, ‘অধিনায়ক তাঁর ইচ্ছে অনুযায়ী মতামত জানাতেই পারেন। কিন্তু অ্যাডিভাইসরি কমিটি হিসেবে আমরা নিজেদের দায়িত্ব পালন করব।’ তবে বিসিসিআইয়ের গাইডলাইন মেনেই তারা কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন গায়কোয়াড়। মহিলা ক্রিকেট দলের কোচ বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও তারা নিজেরাই নিজেদের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন বলে জানান তিনি।

ইতিমধ্যেই ভারতীয় দলের কোচের পদে আবেদন জানিয়েছেন প্রাক্তন ফিল্ডিং কোচ রবিন সিং ও ২০০৭ ভারতের টি২০ বিশ্বজয়ী ম্যানেজার লালচাঁদ রাজপুত। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের প্রাক্তন কোচ টম মুডি ও প্রাক্তন কিউয়ি কোচ মাইক হেসনও ভারতীয় দলের কোচ হতে চেয়ে আবেদন করতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু ম্যান ম্যানেজমেন্ট, পরিকল্পনা ও টেকনিক্যাল অভিজ্ঞতা মূলত এই তিনটি বিষয়কে মাথায় রেখেই বেছে নেওয়া হবে কোহলিদের নয়া কোচ। জানিয়েছেন গায়কোয়াড।