কলকাতা: ক্যাপ্টেন কোহলির মুকুটে নতুন পালক৷ ইডেনে বাংলাদেশকে এক ইনিংস ও ৪৬ রানে হারানোর সুবাদে ভারত অধিনায়ক একাধিক নজির গড়েন৷ যার মধ্যে রয়েছে অনবদ্য কিছু ক্যাপ্টেন্সি রেকর্ডও৷

ইডেন টেস্টে জয়ের পর টেস্টের ইতিহাসে সব থেকে সফল ক্যাপ্টেনদের তালিকায় কোহলি উঠে আসেন পাঁচ নম্বরে৷ বিরাটের নেতৃত্বে ভারত এই নিয়ে ৩৩টি টেস্টে জয় তুলে নেয়৷ এই নিরিখে কোহলি টপকে যান প্রাক্তন অজি অধিনায়ক অ্যালান বর্ডারকে, যিনি অস্ট্রেলিয়ার ৩২টি টেস্ট জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন৷

আরও পড়ুন: ধোনিকে পিছনে ফেলে নতুন নজির কোহলির

ক্যাপ্টেন হিসাবে কোহলির থেকে বেশি টেস্ট জিতেছেন আরও চার জন৷ শীর্ষে রয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন অধিনায়ক গ্রেম স্মিথ৷ তাঁর নেতৃত্বে প্রোটিয়ারা ৫৩টি টেস্ট জিতেছে৷ দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছেন দুই অজি কিংবদন্তি রিকি পন্টিং ও স্টিভ ওয়া৷ দু’জনের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়া টেস্ট জিতেছে যথাক্রমে ৪৮ ও ৪১টি৷ চার নম্বরে আছেন ক্যারিবিয়ান গ্রেট ক্লাইভ লয়েড৷ তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩৬টি টেস্ট জয়ে অধিনায়কের ভূমিকা পালণ করেছেন৷

আরও পড়ুন: ইডেনে বিশ্বরেকর্ড টিম ইন্ডিয়ার

ইডেনে কোহলির নেতৃত্বে ইতিহাসের প্রথম দল হিসাবে টানা ৪টি টেস্টে ইনিংস জয়ের বিশ্বরেকর্ড গড়ে ভারত৷ পুণেতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে এক ইনিংস ও ১৩৭ রানে পরাজিত করে ভারত৷ রাঁচিতে পরের টেস্টে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে এক ইনিংস ও ২০২ রানে জয় তুলে নেয় টিম ইন্ডিয়া৷ ইন্দোরে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টে এক ইনিংস ও ১৩০ রানে জয় তুলে নেয় কোহলিরা৷ এবার কলকাতায় টাইগারদের এক ইনিংস ও ৪৬ রানে পরাজিত করে ভারত৷ বিশ্বের আর কোনও দলই কখনও পর পর চারটি টেস্টে এক ইনিংসের ব্যবধানে ম্যাচ জিততে পারেনি৷ সুতরাং ক্যাপ্টেন কোহলির এটি একটি অনবদ্য সাফল্য সন্দেহ নেই৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।