কলম্বো: আগের ম্যাচে যেখানে শেষ করেছিলেন ঠিক সেখান থেকেই যেন এই ম্যাচে শুরু করলেন বিরাট কোহলি৷ কারণ তাঁর ফেভারিট ডিস যে ‘শ্রীলঙ্কান বোলিং’৷ সুস্বাদু এই ডিস পেলে রসনার তৃপ্তি মেটাতে কোন কসুর করেন না এদিনও বোঝালেন ওয়ান ডে ক্রিকেটের এক নম্বর ব্যাটসম্যান৷ তাঁর অনবদ্য শতরানের দৌলতেই লঙ্কাকে ছ’উইকেটে হারাল টিম ইন্ডিয়া৷ এদিন শতরান করার সঙ্গে সঙ্গে রিকি পন্টিংয়ের ৩০টি শতরানের রেকর্ড স্পর্শ করেন তিনি৷

আরও পড়ুন: মালিঙ্গার বাড়িতে ডিনারে টিম কোহলি

এই সিরিজে ভালোই ছন্দে রয়েছেন টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক৷ প্রথম ওয়ানডেতে করেছিলেন ৮২৷ পরের ম্যাচ দুটিতে অবশ্য রান পাননি বিরাট৷তবে চতুর্থ ওয়ানডেতে ১৩১ রানের ধুঁয়াধার ইনিংস খেলেন তিনি৷আর এদিন যখন ব্যাট করতে এসেছিলেন দু’উিইকেট হারিয়ে কিছুটা বিপদে পড়ে গিয়েছিল ভারত৷ প্রথমে মনীশ পাণ্ডে(৩৬) এবং পরে কেদার যাদবকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেন ভারত অধিনায়ক৷ তবে জয়ের থেকে ভারত যখন মাত্র দু’রান দূরে তখনই ফিরে যান কেদার যাদব(৬৩)৷ অধিনায়ক কোহলি অপরাজিত থাকেন ১১০ রানে৷শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে এটি তাঁর আট নম্বর সেঞ্চুরি৷ ২০১৭ মরশুমের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ১০০০ রানের গন্ডিও টপকালেন ‘কিং কোহলি’৷ চলতি মরশুমে এটি তাঁর চার নম্বর সেঞ্চুরি৷

আরও পড়ুন: শ্রীলঙ্কান বোলিংই কোহলির ‘ফেভারিট ডিস’

এদিন শতরান করে ছুঁয়ে ফেললেন প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক রিকি পন্টিংয়ের ওয়ানডে সেঞ্চুরির রেকর্ড৷ ৩৭৫ ম্যাচে পন্টিংয়ের সংগ্রহে ছিল ৩০টি সেঞ্চুরি৷ ১৮১ ম্যাচ কম খেলে প্রাক্তন অজি ক্যাপ্টেনকে ছুঁয়ে ফেললেন কিং কোহলি৷ কোহলির আগে রয়েছেন শুধু ‘মাস্টার ব্লাষ্টার’ সচিন তেন্ডুলকর৷ ৪৬৩ ম্যাচে লিটল মাস্টারের সংগ্রহ ৪৯টি সেঞ্চুরি৷ যে গতিতে এগোচ্ছেন বিরাট তাতে ‘ক্রিকেট ঈশ্বর’-এর রেকর্ড ভেঙে গেলে আশ্চর্য হওয়ার কিছু থাকবে না৷

আরও পড়ুন: টানা দ্বিতীয়বার লঙ্কাকে ‘হোয়াইটওয়াশ’ করল টিম ইন্ডিয়া

রবিবারের কলম্বো একসঙ্গে তিনটি রেকর্ডের সাক্ষী থাকল৷ টেস্ট ও ওয়ানডেতে একসঙ্গে হোয়াইটওয়াশের রেকর্ড তো রয়েইছে, এদিনের জয়ের ফলে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে দ্বিতীয়বার ৫-০ ব্যবধানে জয় পেল ভারত৷ এর আগে ২০১৪-১৫ শ্রীলঙ্কাকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারত৷ এদিকে, ওয়ানডে ম্যাচে ১০০ স্টাম্পিং করে নজির গড়লেন ধোনি৷ ভেঙে দিলেন কুমার সাঙ্গাকরার ৯৯টি স্টাম্পিংয়ের রেকর্ড৷আর সঙ্গে বিরাটের ৩০টি শতরান৷